নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়া শহরের বাইপাস সড়ক সংলগ্ন ধান ক্ষেতের ভিতর হীরক মন্ডল নামের এক ব্যক্তি কে অজ্ঞান অবস্থায় পাওয়া গেছে। তার গায়ে হাতে মুখে আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়।
সেখানে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রথমে একটি বাচ্চা ছেলে খেলা করতে এসে ধান ক্ষেতের ভিতর এক জন ব্যক্তিকে পরে থাকতে দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে স্থানীয় লোকজন এসে ওই ব্যক্তিকে ধান ক্ষেতের ভেতর কাদামাটিতে পড়ে থাকতে দেখতে পাই। তখন স্থানীয় জনগণ জগতি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শেখ মোঃ মেহেদী হাসান কে অবহিত করলে তিনি তাৎক্ষণিক সেখানে এসে ফায়ার সার্ভিসকে ডাক দেন এবং সে ব্যক্তিকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
তার চোখে মুখে পানি দিলে একটু স্বাভাবিক হলে জানতে পারি তার বাসা রাজবাড়ী জেলার লক্ষ্মীপুর শাহজাহান পাড়া। সে বাসা থেকে অটো নিয়ে বের হলে একজন তার অটোতে করে পল্লী বিদ্যুতের সামনে যেতে চায়। সেখানে থেকে আরও ৪/৫ জন তার অটোতে উঠে। সামনে একটি মাইক্রোবাসের কাছে এসে তাকে অটো থেকে ধাক্কা দিয়ে মাইক্রোর ভিতর তুলে নেয়। তারপর মাইক্রোর ভেতরে তাকে মারধর করতে থাকে। মারধর করা অবস্থায় তিনি অজ্ঞান হয়ে যান। তারপর আর কিছুই তার মনে নাই।
হীরক মন্ডলের ভাগ্নে দীপঙ্কর কুমার সাহার সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, তার মামা একজন অটো চালক। ১ মাস আগে এই অটো তিনি ক্রয় করেন। একদম নতুন অটো। এই অটোটি ছিনতাই করার জন্যই তাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে মনে হচ্ছে। এখন পর্যন্ত আমরা অটোর কোন খোঁজ খবর জানিনা। স্থানীয় একজন চিনতে পেরে ফোন করে আমাদের ২৫০ শয্যা কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতলে আসতে বলেছেন। আমরা এখন হাসপাতালের দিকে রওনা হয়েছি।

error: Content is protected !!