কুমারখালী প্রতিনিধি
কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের গড়ের কাঞ্চনপুর গ্রামে পূর্বশত্রুতার জেরে তুষার চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা নজরুল সমর্থকদের সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন আহত হয়ে হাসপাতালে। ভাংচুর করা হয়েছে বাড়ি ঘর। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর গড়েরমাঠ ব্রীজ এলাকায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- ইউনিয়ন কৃষকলীগের সদস্য এবং ওই এলাকার মৃত আব্দুল কাদের বিশ্বাসের ছেলে আব্দুল আজিজ (৫২) ও আব্দুল সজিব (৪৮), মৃত চাঁদ আলীর ছেলে রেজাউল (৫৫) এবং মান্নান বিশ্বাসের ছেলে নিশান (১৪)।

এলাকাবাসী জানান, চাঁদুপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম সমর্থিত আব্দুল আজিজ ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুজ্জামান তুষার সমর্থিত সাইদ এর মধ্যে আধিপত্য বিস্তারে বিরোধ চলে আসছিল।

গত ৩০ নভেম্বর সোমবার এশার নামাজের পর কাঞ্চনপুর পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদের সাধারণ সম্পাদক রশিদ জোয়ার্দারকে বাদ দিয়ে নতুন কমিটি গঠনের জন্য সিদ্ধান্ত নিলে আজিজ নামের ব্যক্তি উত্তেজিত হলে উভয়পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়।

এর জেরে চেয়ারম্যান সমর্থিত সাইদের ভাতিজা অষ্টম শ্রেণির ছাত্র নিশানকে ( ১৪) মঙ্গলবার সকালে কোচিং শেষে বাড়ি ফেরার পথে আজিজ সমর্থিত কয়েকজন মারধর করে।এরপর বিষয়টি জানাজানি হলে সাইদের সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আজিজদের উপর হামলা চালায়। এসময় আজিজ, সজিব ও রেজাউল নামের তিনজন গুরুতর আহত হয়।আহতদের কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।এবং আজিজের অবস্থা আশংঙ্খাজনক হওয়ায় তাকে কুষ্টিয়ার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট্য হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে কুমারখালী থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত) রাকিব হাসান মুঠোফোনে বলেন, মসজিদের কমিটি নিয়ে আওয়ামীলীগের দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ৪ জন আহত হয়েছে।তিনি আরো বলেন,এবিষয়ে এখনও কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি।

error: Content is protected !!