নিজস্ব প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে তিনমাসের অন্তঃসত্ত্বা যুবতীকে (২৩) যৌন পীড়নের অভিযোগে ইদ্রিস আলী (৩৮) নামেন এক পল্লী চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৩) সকালে উপজেলার নন্দনালপুর ইউনিয়নের চড়াইখোল এলাকা তাকে গ্রেফতার করা হয়।তিনি ওই এলাকার আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে এবং অন্তঃসত্ত্বা যুবতী একই এলাকার বাসিন্দা।

পুলিশ ও ভিকটিমের পরিবার সুত্রে জানা গেছে, তিনমাসের অন্তঃসত্ত্বা ওই যুবতী নিয়মিত চিকিৎসার অংশ হিসাবে সোমবার দুপুরে চড়াইখোল স্টেশন মসজিদ সংলগ্ন পল্লী চিকিৎসক ইদ্রিস আলীর চেম্বারে যায়। এসময় লম্পট চিকিৎসক চেম্বারের পিছনের গোপন কক্ষে নিয়ে জোরপূর্বক কোলের উপর বসিয়ে বুকে, পেটে ও গোপনাঙ্গে হাত দিয়ে যৌন পীড়ন করে এবং কুপ্রস্তাব দেয়। এরপর যুবতী চিকিৎসকের সাথে ধস্তাধস্তি করে বাড়িতে যায় এবং ওই রাতেই ভিকটিম বাদী হয়ে কুমারখালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ( ১০ ধারায়) একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা ২২, তাং ২৩/০২/২০২১। পরে মঙ্গলবার সকালে অভিযান চালিয়ে আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপার্দ করে পুলিশ।

এবিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান জানান, নিয়মিত চিকিৎসার অংশ হিসেবে পল্লী চিকিৎসকের চেম্বারে গেলে চিকিৎসক জোরপূর্বক বুকে,পেটে ও গোপনাঙ্গে হাত দিয়ে যৌন পীড়ন করে।এঘটনায় ভিকটিম নিজেই বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন এবং আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপার্দ করা হয়েছে।

error: Content is protected !!