নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়ায় গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন চার জনের মৃত্যু হয়েছে। সংখ্যার বিচারে এটিই ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে করোনায় সর্বোচ্চ রোগী মৃত্যুর ঘটনা। মৃতদের মধ্যে তিন জনের বাড়ি কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় এবং একজনের ভেড়ামারা উপজেলায় বলে জানিয়েছেন কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম। এদিকে করোনা রোগীদের ভিড় সামাল দিকে হাসপাতালের ১০ নং সার্জিক্যাল ওয়ার্ডকে বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) থেকে করোনা ওয়ার্ড হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। আগে যেখানে করোনা রোগীদের জন্য সব মিলিয়ে ৭৪ টি বেড ছিল এখন সেখানে ২৬ টি বেড যুক্ত করে এ সংখ্যা ১শ তে উন্নীত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: তাপস কুমার সরকার। বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত হাসপাতালে ৬৪ জন করোনা পজিটিভ রোগী ভর্তি রয়েছেন। এদিকে কুষ্টিয়ায় করোনা পরিস্থিতির ক্রমেই অবণতি ঘটায় কুষ্টিয়া পৌর এলাকায় চলমান বিধি নিষেধ আরো বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম। তবে কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম এ বিষয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। করোনার বিস্তার রোধে গত ১১ জুন থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত কুষ্টিয়া শহরের পৌর এলাকায় ৭ দিনের কঠোর বিধি নিষেধ আরোপ করে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেন জেলা প্রশাসক। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, জেলায় আগে যেখানে করোনা শনাক্তের সংখ্যা শতকরা ২০ ভাগের নিচে ছিল এখন সেখানে শনাক্তের সংখ্যা ৪০ ভাগের উপরে উঠে গেছে।

error: Content is protected !!