নিজস্ব প্রতিনিধি : শিশির ভেজা শীতের সকালটা শুরু থেকে দিনভর উৎসবমুখর আয়োজনে মিলিত ডুসাক পরিবারের পদচারনায় প্রাণ সঞ্চারিত হয়েছিলো কুষ্টিয়া কালেক্টরেট চত্বর। শুক্রবার দিনভর আয়োজনের আনুষ্ঠানিকতার মঞ্চ করা হয়েছিলো অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে। প্রতিবারের ন্যায় এবারও বর্ণিল আয়োজনে জেলার বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে নিয়োজিত ঢাকা ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট এসোশিয়েশন অব কুষ্টিয়া (উটঝঅক)র ৪র্থ মিলনোৎসবে স্ব-পরিবারে মিলিত হয়েছিলেন তারা। নিজেদের উদ্যোগে শীতের পিঠা উৎসব, নানাবিধ খাবারের সমারোহ। মুক্ত বলাকার মতো পাখামেলে ধরেছিলো অবারিত কালেক্টরেট চত্বরে। সেই সাথে এই আয়োজনের অন্যতম কেন্দ্রবিন্দু ছিলো ডুসাকের প্রধান উপদেষটা কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসালাম হোসেনের বিদায় সম্বর্ধনা। গতকাল সন্ধা ৭টায় অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে ডুসাক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল আলম টুকুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিদায় সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন তার কর্মময় জেলার দায়িত্ব পালনকালে সবস্তরের সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। একই সাথে ডুসাক পরিবারের প্রতি শুভকামনাসহ এমন প্রাণবন্ত মিলমেলার নিরন্তর অবিচল থানার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। সাংস্কৃুতিক অনুষ্ঠানসহ কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। ডুসাক পরিবারের সকল সদস্যের অংশগ্রহনের এই মিলন মেলাটির সমগ্র আয়োজনকে সমন্বিত করার দায়িত্বে ছিলেন ডুসাক সাধারণ সম্পাদক সাদেকুর রহমান ও আরিফুর রহমান। উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ে শিক্ষা জীবন শেষ করে যারা সরকারী, বেসরকারী, স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানসহ নানা গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বের পদ পদবী ধারণ করে কর্মক্ষেত্র হিসেবে কুষ্টিয়াতে অবস্থান করছেন, তাদের সমন্বয়ে গঠিত এই ডুসাক পরিবার সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সামাজিক অবদান রাখার প্রত্যয়ই মূল লক্ষ্য বলে জানান। সেই সাথে ফেলে আসা ক্যাম্পাস ও শিক্ষাজীবনের স্মৃতি বিজড়িত দিনের স্বাদ খোঁজার ক্ষুদ্র প্রয়াসেই প্রতি বছর সংগঠনের আয়োজনে এবারে হলো ৪র্থ মিলনোৎসব-২০২১।

 

error: Content is protected !!