কুষ্টিয়া চিনিকলের সুরক্ষিত গুদাম থেকে রহস্যজনকভাবে ৫২ দশমিক ৭শ মেট্রিক টন চিনি গায়েবের ঘটনায় শিল্পমন্ত্রনালয় গঠিত তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছে। গত শনিবার ৫ জুন গঠিত শিল্প মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব শিবনাথ রায়ের নেতৃত্বাধীন ৫ সদস্যের তদন্ত দল রোববার রাতে ঢাকা থেকে কুষ্টিয়া চিনিকলে এসে পৌছায়। সোমবার সকাল থেকেই তদন্ত দল আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁদের কার্যক্রম শুরু করে। চিনি উধাওয়ের ঘটনায় কারো সম্পৃক্ততা রয়েছে কিনা সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে তাদের বক্তব্য নেয়া হয়। দিনব্যাপী তদন্ত টিম বিকেল পর্যন্ত প্রায় ১০ জনের বক্তব্য গ্রহণ করেন। তবে দীর্ঘ সময় ধরে চলা এ তদন্তে কারো সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া গেছে কিনা এ বিষয়ে কোন কিছু জানা যায়নি। তদন্ত চলাকালে গণমাধ্যমকর্মীদের মিলের মধ্যে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। পরে বিকেলে তদন্ত কমিটির প্রধান শিবনাথ রায় জানান, তদন্তের স্বার্থে তাঁরা এই মুহূর্তে কোন কিছুই প্রকাশ করবেন না। তদন্ত কমিটির ৫ সদস্য ছাড়াও এ সময় কুষ্টিয়া চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাকিবুর রহমান খানসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত,গত বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়া চিনিকলের সুরক্ষিত গুদাম থেকে ৫২ দশমিক ৭শ মেট্রিক টন চিনি উধাওয়ের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে স্টোর কিপার ফরিদুল হককে বরখাস্ত করা হয়। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের জন্য চিনিকলের মহা-ব্যবস্থাপক (কারখানা) কল্যাণ কুমারকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট অপর একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এদিকে ঘটনার চারদিন পর গত শনিবার রাতে মিল কর্তৃপক্ষ এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে।

error: Content is protected !!