নিজস্ব প্রতিনিধি : কুষ্টিয়া জেলায় প্রথম করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণ করলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ সদর আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ।

সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১১টায় কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে এ টিকা গ্রহণ করে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে এই টিকা প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র নার্স রাবেয়া আক্তার মাহবুব-উল আলম হানিফের শরীরে কোভিড-১৯ এর টিকা পুশ করেন।

টিকা গ্রহণ করে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শিতার কারণে বৈশ্বিক মহামারি করোনা থেকেও অনেকটা রক্ষা পেয়েছে। আজকের এই টিকা কার্য সারাদেশে একযোগে শুরু হচ্ছে একটি চলমান প্রক্রিয়া। বাংলাদেশের মানুষের জন্য পর্যায়ক্রমে তাদের টিকা দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, বিশ্ব করোনার ভ্যাকসিন যখন আবিষ্কার হয় তখনও অনেকেই নেতিবাচক ধারণা করেছিল বাংলাদেশ ভ্যাকসিন মনে হয় আর আসবে না। আমরা সেসব কে পেছনে ফেলে বাংলাদেশে সত্যিই ভ্যাকসিন আনতে পেরেছি।

জাতির সাথে মিথ্যাচারে লিপ্ত আছে বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, মানুষকে এই ভ্যাকসিন এর কথা বলে বিভ্রান্তিতে ফেলতে চেয়েছিলেন। যার ফলশ্রুতিতে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দরা প্রথম এই ভ্যাকসিন নিচ্ছে। এ ভ্যাকসিন অত্যন্ত নিরাপদ ভ্যাকসিন এটা নেওয়ার ফলে শরীরে কোনো ক্ষতি হবে না বলেও জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়া-৪(খোকসা-কুমারখালী) আসনের সংসদ সদস্য ব্যরিস্টার সেলিম আলতাব জর্জ, কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন, পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান, কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. তাপস কুমার সরকার, ডা. এস এম মুসা কবিরসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন

কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম জানান, প্রথম পর্যায়ে ২৬-২৭ হাজার মানুষকে করোনা ভ্যাকসিন দেয়া হবে। কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় দুটি স্থানে এই করোনা টিকা দেয়া হবে। এর একটি ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল এবং অন্যটি কুষ্টিয়া পুলিশ লাইন হাসপাতাল।

error: Content is protected !!