নিজস্ব প্রতিনিধি : ‘কোভিড ও ডায়াবেটিস প্রতিরোধে বাঁচবে জীবন’ এ প্রতিপাদ্য বিষয়ে ২৮ ফেব্রুয়ারি ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস পালিত হয়েছে। ডায়াবেটিস রোগ সম্পর্কে জনগণকে সচেতন করে তোলার লক্ষ্যে কুষ্টিয়াতেও ‘ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস’ পালন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে জনসাধারণকে ডায়াবেটিক রোগ সম্পর্কে সজাগ থাকার জন্য কুষ্টিয়া ডায়াবেটিক সমিতির আয়োজনে রবিবার সকাল সাড়ে ৯টায় মুজিবুর রহমান মেমোরিয়াল ডায়াবেটিক হাসপাতালে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করা হয়। এরপর টেলিকনফারেন্স এর মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ড.আ আ ম স আরেফীন সিদ্দিক। কুষ্টিয়া ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি মতিউর রহমান লাল্টুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া ডায়াবেটিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোশফেকুর রহমান টর্লিন। বক্তব্য রাখেন হাসপাতালের সিনিয়র মেডিকেল অফিসার ডাঃ লাল মহম্মদ।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বলেন, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তুলনামূলকভাবে কম থাকার কারণে ডায়াবেটিক রোগীদের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি, প্রতিরোধে সবাইকে ভ্যাকসিন নিতে হবে । সেই সাথে ডায়াবেটিস ঝুকি এড়াতে নিয়িমত খাদ্যাভ্যাসসহ নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন করতে হবে। পাশাপাশি হাঁটাচলা ও নিয়মিত ব্যায়ামের মাধ্যমে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের ওপর গুরুত্ব দিতে হবে। মনে রাখতে হবে সচেতনা এই রোগ থেকে মুক্তির একমাত্র পথ। তিনি আরো বলেন, কুষ্টিয়াতে পর্যাপ্ত করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের ভ্যাকসিন রয়েছে, তাই রেজিষ্টেশনের মাধ্যমে টিকা নেওয়ার আহবান জানান।

সভাপতির বক্তব্যে মতিউর রহমান লাল্টু বলেন, এ হাসপাতাল বিগত ২৮ বছর যাবত ডায়াবেটিস রোগীদের নিয়মিত সেবা প্রদান করে চলেছে, বর্তমানে এ হাসপাতালের নিবন্ধিত রোগীর সংখ্যা ৮০ হাজারেরও অধিক। তিনি বলেন, ডায়াবেটিস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ শুধু রোগীরাই করবে না, প্রতিটি পরিবারকে এ বিষয়ে উদ্যোগ নিতে হবে। রোগীর সঙ্গে পরিবারের সদস্যদেরও সচেতন হতে হবে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া ডায়াবেটিক সমিতির সহ-সভাপতি হাফিজুল রহমান কাল্টু, সদস্য নিলুফার রহমান এ্যানি, দৈনিক সংবাদের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি মিজানুর রহমান লাকি, পরিবেশবীদ খলিলুর রহমান মজু, হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ হেলাল উদ্দিন, ডাঃ মোহনা আফরোজ প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কবি কনক চৌধুরী।

error: Content is protected !!