নিজস্ব প্রতিবেদক : দুই যুগেও খালটি খনন করা হয়নি। মাটি পড়ে খালটি মরা খালে পরিণত হওয়ার উপক্রম হয়েছে। খালটির পানি প্রবাহ প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। পানির অভাবে পাঁচ শতাধিক একর জমির ইরি ধান চাষে ব্যাহত হচ্ছে। দুশ্চিন্তায় আছেন কুষ্টিয়া ইবি থানার উজান গ্রাম ইউনিয়নের মহিষাডাঙ্গা গ্রামের কয়েকশ কৃষক।

গতকাল রবিবার দেখা গেছে,কুষ্টিয়া -ঝিনাইদহ মহাসড়ক এর পুর্বপাশে অবস্থিত জিকে কেনেল / খাল অবস্থিত। প্রায় ২ কিলোমিটার জিকে খালের আওতায় শতাধিক জমি পানি সংকটে অনাবাদী হয়ে পড়ছে। সুযোগ বুঝে ভাটা গুলো গ্রাস করছে অনাবাদী জমি গুলো।

কৃষকদের সাথে আলাপ কালে তারা বলেন
খালের পানির ওপর নির্ভর করেই পাঁচ শতাধিক একর জমিতে আমন ও ইরি ধানের চাষাবাদ করেন মহিষাডাঙ্গা গ্রামের কয়েকশ কৃষক। কিন্তু বর্তমানে খালটি মরা খালে পরিণত হয়েছে। উক্ত খাল খনন করা না হলে কৃষকদের কষ্টের শেষ থাকবে না।

উজান গ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাবুবীন ইসলাম বলেন, ‘মহিষাডাঙ্গা এলাকার মানুষ কৃষি নির্ভরশীল। কৃষি কাজ করেই তাদের জীবন-জীবিকা করতে হয়। খালটির পানির প্রবাহ বন্ধ থাকায় তাদের দুর্ভোগের শেষ নাই।তাই এই খালটি খনন করা এখন সময়ের দাবি।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস সুত্রে জানা যায়, ‘বিষয়টি ভুক্তভোগী কৃষকদের মাধ্যমে অবগত হয়েছি। খাল খননের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে, যাতে কৃষকেরা খালের পানি ব্যবহার করে নির্বিঘ্নে চাষাবাদ করতে পারে।’

error: Content is protected !!