ভেড়ামারা প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা বারমাইলে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ জাকির হোসেন বুলবুলের ক্রয়কৃত প্রায় ২৯ কাঠা জমি রাতের অন্ধকারে ড্রাম ট্রাকের সাহায্যে দোকার ঘর ও পেলুডা গাড়ী (হুইল লোডার) দিয়ে জমির সীমানা প্রচীর ভেঙ্গে দখলের চেষ্টা চালানো হয়েছে।

থানার মামলা সূত্রে জানা যায়, ভেড়ামারা ১২মাইল মুজিবুল হক মাংগন এর হোটেলের সামনে ঢাকা-কুষ্টিয়া মহাসড়কে মামলার বাদী ১২মাইলের মৃত বারী প্রামানিকের পূত্র মোঃ পিন্টু (৫০) এর খালু শশুর মোঃ জাকির হোসেন বুলবুলের ক্রয়কৃত প্রায় ২৯ কাঠা জমি দেখা-শোনা করে থাকেন। গত ১০ই মার্চ রাত সাড়ে নয়টায় ড্রাম ট্রাকের সাহায্যে দোকান ঘর ও পেলুডা গাড়ী (হুইল লোডার) দিয়ে জমির সীমানা প্রচীর ভেঙ্গে অবৈধভাবে দখলের চেষ্টা চালায় এলাকার চিহ্নিত বিএনপি দলীয় সন্ত্রাসী বাহিনী। এসময় বাধা দিতে গেলে পিন্টু’র বড়ভাই আসাদ ও পিন্টু’র স্ত্রী মোছাঃ সেবা খাতুনকে এলোপাতাড়ি ভাবে আঘাত করে গুরুতর আহত করে জমির সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে দখলের চেষ্টা চালানো হয়। মামলার আসামীরা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ জাকির হোসেন বুলবুলের জমির সীমানা প্রাচীর ও দোকান ঘর ভেঙ্গে আনুমানিক ৫লক্ষ টাকার ক্ষতিপূরণ করে।

এ ব্যাপারে মোঃ পিন্টু বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় ৮জনের নামে মাললা করেন। মামলার আসামীরা হলেন, ভেড়ামারার বাহিরচর ইউনিয়নের ১৬দাগ মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত ইয়াছিন মালিথার পূত্র ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মোঃ তৌহিদুল ইসলাম আলম (৫৫), তার ভাতিজা মৃত নুরুল ইসলাম মালিথার পূত্র বিজলী মালিথা (৫২) ও ভুই বাবু (৪৫), মোঃ হান্নান মালিথার পূত্র মোঃ মুন্না (৪০), ১২মাইলের মজিদ মালিথার পূত্র মোঃ রুনু (৩৮), আয়ূব মালিথার পূত্র মোঃ আল-আমিন (৩০), মৃত কাচের মৌলভী’র পূত্র এনামূল মালিথা (২৭) ও মিরপুর রানাখড়িয়ার কদমতলার মোঃ ফজলুল কবিরাজের পূত্র মোঃ রায়হান আলী (২৭)।

ভেড়ামারা থানার সাব-ইন্সপেক্টর প্রকাশ রায় ঘটনাটির সত্যতা স্বীকার করে জানান, এব্যাপারে মোঃ পিন্টু বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় ৮জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছেন। যার মামলা নং-১৫, তাং- ১১/০৩/২১ইং। আমরা ঘটনাস্থল থেকে মামলার ৮নং আসামী মিরপুর রানাখড়িয়ার কদমতলার মোঃ ফজলুল কবিরাজের পূত্র মোঃ রায়হান আলী (২৭)কে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করি।

error: Content is protected !!