নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ সরকারের গত ১২ বছরের যে ধারাবাহিক সফলতা, উন্নয়ন এবং অগ্রগতি তা বিএনপি জামায়াতের পছন্দ না। এটা ওদের কষ্ট বলেই তার বহিঃপ্রকাশ ঘটানোর জন্যই স্বাধীনতা দিবসে তারা নারকীয় তান্ডব চালিয়েছে। মূলত হেফাজতের ঘাড়ে ভরকরে এগুলো করেছে বিএনপি এবং জামায়াত। এমন মন্তব্য করে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী আমরা ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে পালন করছি, সেই স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর দিনটিকে কালিমা লেপন করার জন্য হেফাজত, জামায়াত এবং বিএনপি মিলে এই তান্ডব চালানোর মধ্যে দিয়ে জাতীর কাছে প্রমাণিত হয়ে গেছে যে এরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে না। এবং এরা স্বাধীনতায় ও বিশ্বাসী না। এরা মুখে বাংলাদেশের কথা বললেও দিলের মধ্যে পাকিস্তানের প্রেম উতলায়ে পড়ে। গত মঙ্গলবার বিকেলে কুষ্টিয়ার পিটিআই রোডের নিজস্ব বাসভবনে, সংক্ষিপ্ত পরিসরে প্রবীণ হিতৈষী সংঘের গুণীজন সম্মাননা অনুষ্ঠানে যোগদানের আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। হানিফ আরো বলেন, হেফাজতের ঘাড়ে ভরকরে এগুলো করেছে বিএনপি এবং জামায়াত। যেখানে ছাত্রদল, যুবদল এবং ছাত্রশিবিরের কর্মীদের দেখা গিয়েছে। এবং তাদের কথাবার্তার মধ্যেও এটা পরিষ্কার হয়েছে। তাদের একজন নেত্রী বাসে আগুন দিয়ে লন্ডনে পাঠাতে হবে বলে নির্দেশনা দিচ্ছে। এগুলো পরিষ্কার। লন্ডনে বসে তাদের নেতা পলাতক আসামী আসামী তারেক রহমান এসব নাশকতা করাচ্ছে। তিনি বলেন, হেফাজতের কাঁধে ভর করে যারাই এই নাশকতার ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। এসময় কুষ্টিয়া-১(দৌলতপুর) আসনের সংসদ সদস্য সারোয়ার জাহান বাদশা, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

error: Content is protected !!