রানা কাদির, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হতদরিদ্র জনগোষ্ঠির জন্য চুয়াডাঙ্গা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ‘উই কেয়ার’ প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের আওতায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এবং বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতায় গ্রামীণ অবকাঠানো উন্নয়নের এক মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। কৃষি পণ্য উৎপাদন, বিপণন ও বাজারজাতকরণের জন্য এ প্রকল্পের আওতায় গ্রামীণ সড়ক নেটওয়ার্ক এবং হাহস্প্রিড ইন্টারনেট ও অনলাইন ব্যাংকিংসহ সকল নাগরিক সুবিধা সম্বলিত গ্রোথ সেন্টার মার্কেট উন্নয়ন করা হবে। এছাড়া মহামারী করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ হতদরিদ্র জনগোষ্ঠির জন্য কর্ম সৃজনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে গ্রামীন দুঃস্থ মহিলারা সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ কাজ ও বাজারগুলোতে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা বৃদ্ধির কাজে সম্পৃক্ত হবেন।

এ প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষে চুয়াডাঙ্গা নির্বাহী প্রকৌশলীর সম্মেলন কক্ষে আজ বুধবার দিন ব্যাপী এক বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালার মূল বিষয় উপস্থাপন করেন ‘উই কেয়ার’ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মমিন মজিবুল হক সমাজী।

কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী অমিতাভ সানা, চুয়াডাঙ্গার সদর, আলমডাঙ্গা, দামুড়হুদা ও জীবননগর উপজেলা প্রকৌশলী, জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং কমিউনিটি সংগঠকগণ।

চুয়াডাঙ্গা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী অমিতাভ সানা বলেন, খুলনা বিভাগের চুয়াডাঙ্গা, মাগুরা, ঝিনাইদহ ও যশোর জেলায় ‘উই কেয়ার’ প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু করার লক্ষে কর্মশালার আয়োজন করা হয়। কর্মশালায় বাস্তবায়ন নির্দেশিকার বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হয়। মহিলা শ্রমিকদের কর্মস্থলের নিরাপত্তা এবং কর্ম উপযোগী পরিবেশ সৃষ্টি তথা মহামারী করোনার মধ্যেও উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রাখার বেশ কিছু কৌশল এই নির্দেশিকায় অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছে। নতুন এই নির্দেশিকা অনুযায়ী কাজ বাস্তবায়িত হলে এলাকার আর্থ সামাজিক প্রভৃতি উন্নয়ন সাধিত হবে।

 

error: Content is protected !!