ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : লকডাউনে নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও মাইক্রোবাসে করে গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দিতে গিয়ে ম্যাজিস্ট্রেট দেখে পালিয়েছেন যাত্রীরা। পরে মাইক্রোবাসের চালককে জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার (২৩ জুন) সন্ধ্যার দিকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ঝিনাইদহে চলছে এক সপ্তাহের লকডাউন। লকডাউনে দূরপাল্লার সব ধরনের যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন জেলা প্রশাসক। কিন্তু এই নির্দেশনা অমান্য করে জেলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মাইক্রোবাসে করে গন্তব্যের উদ্দেশে ছুটছেন যাত্রীরা।

সূত্র জানায়, বুধবার সন্ধ্যার দিকে ঝিনাইদহ কালীগঞ্জ শহরের প্রধান বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে একটি মাইক্রোবাসে করে কিছু যাত্রী যশোরে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ঠিক এমন সময় সেখানে ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়ি এসে হাজির হয়। সে সময় মাইক্রোবাসে থাকা যাত্রীরা তাদের কাছে থাকা ব্যাগ গাড়িতে রেখে দৌড়ে পালিয়ে যান। এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ভুপালী সরকার। তিনি মাইক্রোবাসের চালককে এক হাজার টাকা জরিমানা করেন।

কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ভুপালী সরকার জানান, ঝিনাইদহ জেলায় করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সাত দিনের বিশেষ লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এতে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধে নির্দেশনা রয়েছে। তবে কিছু অসাধু মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার চালক এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন স্থান থেকে যাত্রী আনা-নেয়া করছেন।

তিনি আরও জানান, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে যাত্রী পরিবহনের চেষ্টা করায় এক মাইক্রোবাস চালককে জরিমানা করা হয়েছে। তবে যাত্রীরা পালিয়ে গেছেন। করোনা সংক্রমণ রোধে ও লকডাউন বাস্তবায়নে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

error: Content is protected !!