দর্শনা অফিসঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা টু মুজিবনগর সড়কের পাশে যে সকল অবৈধ স্থাপনা রয়েছে তা গতকাল শুক্রবার সকাল ১০ ঘটিকা থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয়েছে। দিনব্যাপী এ অভিযান অব্যাহত থাকে সারাদিনে দর্শনা বাসষ্ট্যান্ড থেকে দর্শনা রেল বাজার পর্যন্ত প্রায় ১শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সরিয়ে না নেওয়াতে ভেঙ্গে দেওয়া হয়। দর্শনা টু মুজিবনগর মহাসড়ক উন্নয়নে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও ড্রেন নির্মাণ কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা-০২ আসনের সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগার টগর। উল্লেখ্য, গত ২১/১১/২০২০ শনিবার বেলা ১১ টার দিকে দর্শনা বাস স্টেশন চত্বরে দর্শনা-মুজিবনগর সড়কের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে রাস্তা উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগর টগর। দর্শনা-মুজিবনগর সড়ক টু লেন নতুন রাস্তার কাজ দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা থেকে নাটুদহ ২৩ কিলোমিটার পর্যন্ত ১শ ২০ কোটি টাকা ব্যায় ও মেহেরপুর মুজিবনগর উপজেলার ৭ কিলোমিটার পর্যন্ত রাস্তার কাজ ২৯ কোটি টাকা মোট ১শত ৪৯ কোটি টাকা ব্যায়ে রাস্তা নির্মান হবে এবং দর্শনা-মুজিবনগর সড়ক উদ্বোধন এর পর থেকেই সড়কের পাশে যে সকল অবৈধ স্থাপনা রয়েছে সেগুলো সরিয়ে ফেলার জন্য বেশ কয়েকবার মাইকিং ও নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। মাইকিং ও নোটিশ প্রদানের পর ও যে সকল অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়নি শুক্রবার সকালে সেগুলো ভেকু দিয়ে ভেঙে ফেলা হয়েছে। এতে করে প্রায় শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সহ বেশ কয়েকটা বসত ঘর উচ্ছেদ করা হয়েছে। যার ফলে ক্ষতিগ্রস্তরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে অনেকেই। কারন রাস্তার পাশে ছোট্ট দোকানে সারাদিনে যা ক্রয়-বিক্রয় করে তা থেকেই অনেকের সংসার চলে। বিশেষ করে তারাই বেশি দিশেহারা হয়ে পড়েছে। কিভাবে সংসার চালাবে? আর পরবর্তির্তে ৫/১০ লাখ টাকা এডভান্স দিয়ে ঘর নেওয়ার সামর্থ্য টুকুও নেই তাদের। দর্শনা-মুজিবনগর সড়কের পাশে যে অবৈধ স্থাপনা রয়েছে সেগুলো উচ্ছেদ এর সময় উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের এমপি হাজী আলী আজগার টগর, দর্শনা পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান, দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান আলী মুনসুর বাবু, নির্বাহী প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরের উপ-পরিচালক অনুজ কুমার, দর্শনা থানার ওসি মাহাব্বুর রহমান কাজল, দর্শনা পৌর নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব গোলাম ফারুক আরিফ সহ অনেকে।

error: Content is protected !!