তুহিন জোয়ারদার (ঝিনাইদহ) থেকে: ঝিনাইদহ জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সেলিম রেজা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা লিজার নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর সদস্য, থানা পুলিশ ও আনসার ব্যাটেলিয়নের সদস্যদের সাথে নিয়ে শৈলকুপার বিভিন্ন এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।বুধবার উপজেলার পৌর এলাকার বিভিন্ন দোকান ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। শৈলকুপা উপজেলার জনসাধারন যখন কোনো ভাবেই কঠোর লকডাউন মানছে না। তখন শৈলকুপার বিভিন্ন বাজার কাঁপিয়ে গেলেন এডিসি সেলিম রেজা।
এসময় মোট ১২ টি মামলায় ৭২০০/- টাকা অর্থ দন্ড প্রদান করা হয় এবং তাৎক্ষণিক ভাবে অর্থ আদায় করা হয়। শৈলকুপা বাজার সহ বিভিন্ন বাজারের ওলি-গলিতে লকডাউন অমান্য করে গোপনে ইলেক্ট্রিক, স্যানেটারী, কাপড় ও জুতার দোকানসহ বিভিন্ন ব্যবসা পরিচালনা করায় ৪ ব্যক্তিকে ২ ও ৫ দিনের জেল এবং ৮ ব্যক্তিকে ৭ হাজার ২শত টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
জেল প্রদানের খবর ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তের মধ্যে সকল অবৈধ দোকান-পাট বন্দ হয়ে যায়। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে জনসাধারনের মাঝে। এডিসি সেলিম রেজা জানান , জনস্বার্থে জেলা প্রশাসনের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।
লকডাউনে জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থানে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত বিধিনিষেধ প্রতিপালন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করণ ও মাস্ক পরিধান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রমসহ দন্ডবিধি ও সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮ এর বিভিন্ন ধারায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।
পরে শৈলকুপা সরকারী কলেজ মাঠে চার শতাধীক দুস্থদের মাঝে প্রত্যেককে ১০ কেজি চাল ও নগদ ২০০ টাকা প্রদান করা হয়।

error: Content is protected !!