চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা এবং আলুকদিয়া ইউনিয়নে রোববার (২০ জুন) সকাল ৬টা থেকে সাত দিনের লকডাউন শুরু হয়েছে। চলবে ২৬ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত।

লকডাউন চলাকালে সকাল ৬ টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা থাকবে। মোটরসাইকেলসহ ইজিবাইক চলবে না। ওষুধের দোকান খোলা থাকবে। লকডাউন চলাকালে চা দোকানও বন্ধ থাকবে।

শনিবার (১৯ জুন) বিকেল ৪টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

এদিকে করোনা সংক্রমণ রোধে ১৪ দিনের জন্য দামুড়হুদা উপজেলা লকডাউনের আজ ষষ্ঠ দিন চলছে। এ উপজেলায় দামুড়হুদায় সংক্রমণ কিছুটা কমলেও চুয়াডাঙ্গা সদরে আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, ‘রোববার সকাল ৬টা থেকে এ লকডাউন আগামী ২৬ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত চলবে। প্রয়োজনে ২৬ জুন পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। লকডাউন চলাকালে শহরে কোনো ইজিবাইক ও মোটরসাইকেল চলবে না। লোকাল বাস শহরে চলবে না। দূরপাল্লার পরিবহনগুলো চললেও তা শহরের মধ্যে থেমে যাত্রী ওঠানামা করবে না। শুধুমাত্র পৌর বাস টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার বাস ছাড়বে। সেখান থেকেই যাত্রী ওঠানামা করবে। কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর দোকান সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘কাঁচাবাজারের কথা বলে কেউ ব্যাগ ছাড়া ঘুরলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। লকডাউন চলাকালে একটি চায়ের দোকানও খোলা থাকবে না। অটো চালক ও চা দোকানিদের প্রয়োজনে নির্ধারিত পরিমাণের চালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করা হবে। শুধুমাত্র ওষুধের দোকান খোলা থাকবে। শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। মাস্ক ছাড়া কোনো ব্যক্তিকে বাড়ির বাইরে পাওয়া গেলে তাকে উপযুক্ত শাস্তি দেয়া হবে।’

error: Content is protected !!