মোক্তার হোসেন, পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার দক্ষিণাঞ্চলে পাট্টা ইউনিয়ন এলাকা। এ ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহি বয়রাট গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান সালাহউদ্দিন অরফে ছন্টু চেয়ারম্যান। পাট্টা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান তিনি। ১৯৯২-৯৭ মেয়াদে পাট্টা ইউপির নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন সালাহউদ্দিন। তিনি ১৯৭৬ সালে বয়রাট ফাযিল মাদরাসা থেকে ফাযিল (ডিগ্রি) পাস করেন। রাজনীতি ও জনকল্যাণমূলক কাজের সাথে সম্পৃক্ত থাকার কারণে সরকারী চাকরীতে যাওয়ার ইচ্ছা জাগেনি তার। ১৯৯২ সালের ছাতা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি। তার পিতা মরহুম আলহাজ্ব ছানাউদ্দিন বিশ্বাস ও দাদা মরহুম এয়ারউদ্দিন বিশ্বাস তৎকালীন পাট্টা ইউপির প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তারা শিক্ষনুরাগী ব্যক্তি ছিলেন। পাট্টা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সালাহউদ্দিন (ছন্টু) পাংশা কলেজে লেখাপড়ার সময় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। তার পুত্র এহতেশাম বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক।

বৃহস্পতিবার ১১ মার্চ আসন্ন পাট্টা ইউপির নির্বাচন ও সমসাময়িক রাজনৈতিক বিষয়াদি নিয়ে তার সাথে এ প্রতিনিধির কথা হয়। রাজনৈতিক পরিবেশ পরিস্থিতি ভালো হলে পাট্টা ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার ইচ্ছা ব্যক্ত করে তিনি বলেন, শুভাকাঙ্খীরা অনেকেই নির্বাচন কার জন্য অনুপ্রেরণা দিচ্ছেন। তাই রাজনৈতিক পরিবেশ পরিস্থিতি ভালো থাকলে নির্বাচন করার ইচ্ছা আছে। সবদিক চিন্তাভাবনা করে নির্বাচনী প্রস্তুতি নেওয়ার অভিমত ব্যক্ত করেন তিনি।

প্রসঙ্গতঃ বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে পাট্টা ইউপি নির্বাচনে সালাহউদ্দিন (ছন্টু চেয়ারম্যান) ফ্যাক্টর হিসেবে দেখা দিয়েছে। এলাকায় তার জনপ্রিয়তা রয়েছে। পাট্টা ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুর রব (মোনা বিশ্বাস), পাট্টা ইউপি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব আলী মন্ডল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইউনুস আলী বিশ্বাস, বিগত ইউপি নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান প্রার্থী বরকত বিশ্বাস ও কৃষকলীগ নেতা গোলাম মোস্তফা লুলু আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে মাঠে রয়েছেন।

error: Content is protected !!