ঢাকা অফিস : করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে আরও সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে চারজন পুরুষ ও তিনজন নারী। সাতজনই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ নিয়ে দেশে এই মহামারিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল আট হাজার ৩৫৬ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ২১৪টি ল্যাবরেটরিতে ১১ হাজার ৫১টি নমুনা সংগ্রহ ও ১১ হাজার তিনটি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৩৯ লাখ ৫৮ হাজার ৭৭৬টি।

এই সময়ের মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও ৩৬৬ জন। দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা পাঁচ লাখ ৪৩ হাজার ৭১৭ জন।

এদিকে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৯২ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৯২ হাজার ৫৯ জন।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার তিন দশমিক ৩০ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৩ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯০ দশমিক শূন্য ৫০ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৪ শতাংশ।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত ও ১৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগীর মৃত্যু হয়। ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মোট মৃত্যু আট হাজার ৩৫৬ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ছয় হাজার ৩২৫ জন (৭৫ দশমিক ৭০ শতাংশ) ও নারী দুই হাজার ৩১ জন (২৪ দশমিক শূন্য ৩০ শতাংশ)।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত সাতজনের মধ্যে চল্লিশোর্ধ্ব একজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব দুইজন ও ষাটোর্ধ্ব চারজন রয়েছেন। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে পাঁচজন, রাজশাহীতে একজন ও বরিশাল বিভাগে একজন মারা যান।

error: Content is protected !!