নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়ায় গড়াই নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে এক জেলের জালে ধরা পড়েছে ‘চন্দ্রবোড়া’ নামে একটি বিষধর সাপ। ধরা পড়ার চার দিন পর শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে স্থানীয় এক যুবক ও বন বিভাগের সহায়তায় সাপটিকে জেলার দুর্গম চরে অবমুক্ত করা হয়।

থানাপাড়া এলাকার প্রকৃতিপ্রেমী ও সমাজসেবক শাহাবুদ্দিন মিলন জানান, গত বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) গড়াই নদীতে মাছ ধরতে যান শহরের মঙ্গলবাড়িয়া এলাকার মৃদুল শেখ। এক পর্যায়ে প্রায় পাঁচ ফিট লম্বা সাপটি তার জালে আটকা পড়ে। অন্যান্য সাপের থেকে ব্যতিক্রম মনে হওয়ায় তিনি সেটিকে বালতিতে করে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন। সাপটির পেট ডিম ভর্তি থাকায় তেমন একটা নড়া-চড়া করছিল না। জেলে মৃদুল শেখ ওই সাপটি বিক্রি করতে সাপুড়েদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টাও করেন। ব্যতিক্রমী এই সাপ উদ্ধারের খবর লোকমুখে ছড়িয়ে পড়লে সবাই তার বাড়িতে ভিড় জমান। পরে বিষয়টি বন বিভাগকে জানান শাহাবুদ্দিন মিলন।

বন বিভাগের কর্মকর্তা আব্দুল হামিদ জানান, বিষয়টি জানতে পেরে শনিবার রাতে তিনি লোকজন নিয়ে জেলে মৃদুল শেখের বাড়িতে যান। পরে সাপটিকে উদ্ধার করে চরে অবমুক্ত করা হয়।

তিনি আরও জানান, জেলে মৃদুল শেখের জানা ছিল না সাপটির নাম চন্দ্রবোড়া এবং এর বিষ কতটা ভয়ংকর হতে পারে। বাংলাদেশে অনেক আগেই এই সাপটি বিলুপ্ত হয়েছে। সম্প্রতি বন্যার কারণে ভারত থেকে এটি ভেসে আসতে পারে।

জানা যায়, এক সপ্তাহ আগে কুষ্টিয়ার কুমারখালী এলাকার ছেউড়িয়ায় একজন জেলের জালে আরেকটি চন্দ্রবোড়া সাপ ধরা পড়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.