মাসুদ রানা, মোংলা : মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলের কোলাবাড়ী এলাকায় ইনার বার ড্রেজিংয়ের বালু ভরাট নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার বিকালে চিলা ইউনিয়নের জয়মনি কোলাবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসময় ড্রেজিং কোম্পানীর এক চিনা প্রকৌশলীসহ দুই প্রকৌশলী আহত হয়েছে। এব্যাপারে ৫ জনকে চিহ্ণিত করে অজ্ঞত নামা প্রায ১৫ জনের নামে মামলা দায়ের করেছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।
বাদী পক্ষের অভিযোগ, মোংলা বন্দরের ইনার বার ড্রেজিং প্রকল্পের কাজ করার সময় হঠাৎ লোকজন এসে তাদের উপর আক্রমন চালায়। এসময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই অহেতুক চায়না প্রকৌশলীসহ দুজনকে হাতুড়ি ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে স্থানীয় কতিপয় জমির মালিক ও তাদের লোকজন। এ ঘটনায় মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রধান প্রকৌশলী ও ইনার বার ড্রেজিং প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক শেখ শওকত আলী বাদী হয়ে সোমবার রাতে মোংলা থানায় একটি মামলা দাযের করে।
পুলিশ জানায়, মোংলা বন্দরের ইনার বার ড্রেজিং প্রকল্পের পশুর চ্যানেল খননে নিয়োজিত চায়না প্রকৌশলী অং ইয়াও (৪৫) ও সাইড ইঞ্জিনিয়ার তন্ময় (৪০) কাজের দেখাশুনা করছিলেন। দুপুরের পরে
চিলা ইউনিয়নের কোলাবাড়ী এলাকায় পাইপ পরিস্কারের কাজ দেখার জন্য যান তারা। হঠাৎ সেখানকার কতিপয় জমির মালিক ও তাদের লোকজন অতর্কিতভাবে চায়না প্রকৌশলী অং ইয়াও ও মোংলা বন্দরের প্রকৌশলী তন্ময়ের ওপর হামলা চালান। এ সময় হামলাকারীরা ওই দুই প্রকৌশলীকে হাতুড়ি ও লাঠিসোটা দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন। পরে ইউপি চেয়ারম্যান খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন সহায়তায় তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। আহতদের মধ্যে চায়না প্রকৌশলী অং ইয়াও মোংলার চায়না প্রজেক্টে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এব্যাপারে জমির মালিক পক্ষের প্রতিনিধি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, মোংলা বন্দরের কিছু অসাধু কর্মকর্তার সহায়তায় আমাদের কৃষি জমিকে জোর পুর্বক বালু ভরাট করছে চায়না কোম্পানীর লোকজন। প্রতিকার চেয়ে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দেযার ফলে গত ৩০ আগাষ্ট জেলা প্রশাসক মহদয় ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন। সে সময় বন্দর কর্কৃপক্ষের প্রকল্প পরিচালক ও চায়না কোস্পানীর লোকজনও উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসকের নির্দেশনা ছিল এক সপ্তাহের মধ্যে জমির মালিকদের ক্ষতিপুরন বুঝিয়ে দেয়া এবং ৬ ফুট উচুর বেশী বালু ভরাট না করা৷ কিন্ত জেলা প্রশাসকের কথাও অমান্য করে জোর পুর্বক আমাদের কৃষি জমিতে ৩০/৩৫ ফুট উচু করে বালু ভরাট করছে। আমাদের কৃষি জমির ক্ষতি পুরনও দিবেনা উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানী করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ ও চায়না কোম্পানীর লোকজন।
মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রধান প্রকৌশলী ইনার বার ড্রেজিং প্রকল্পের পরিচালক শেখ শওকত আলী বলেন, ‘কোলাবাড়ী এলাকায় জমির মালিক ও তাদের লোকজনের ড্রেজিং কোম্পনীর চায়না প্রকৌশলী ও বন্দরের এক কর্মকর্তাকে মেরে আহত করেছে। তাদের অতর্কিত হামলায় আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ হামলার ঘটনায় চার-পাঁচজন জমির মালিকসহ আরও অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিদের নামে রাতে মোংলা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় রাতে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে। দোষিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.