ভেড়ামারা প্রতিনিধি : প্রতারণার মাধ্যমে ‘ নগদ’ এর ই-মানি থেকে ৭ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা থানা পুলিশ বুধবার রাতে ফারুক হোসেন (২৯) নামে এক উদ্যোক্তা প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে। ফারুক উপজেলার বাহিরচর ইউনিয়নের ১২মাইল টিকটিকি পাড়া এলাকার মোজাম্মেল হকের পুত্র। ঘটনায় ভেড়ামারা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ১২মাইল বাস স্ট্যান্ডে ফারুকের নিজস্ব দোকান আছে। সেখানে তিনি ‘নগদ’ উদ্যোক্তা হিসেবে ব্যবসা করতেন। গত ৭সেপ্টেম্বর নগদের ডিএসও রবিনের মোবাইল নাম্বারে ফোন করে ৭লাখ টাকা লাগবে বলে ই-মানি করতে বলেন। তখন রবিন আসামির চাহিদা অনুযায়ী ৭ লাখ টাকা ফারুকের উদ্যোক্তা নাম্বারে ই-মানি করেন।

তারপর রবিন টাকা চাইলে ফারুক তালবাহানা শুরু করে দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যান। ঘটনায় নগদের ডিস্টিবিউটর ‘মেসার্স আনিশা এন্টার প্রাইজ’ এর ডিসট্রিবিউশন ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ফারুক হোসেনকে আসামি করে ভেড়ামারা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১১/১৯০। তারিখ – ০৯/০৯/২১।

ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মজিবুর রহমান বলেন, উক্ত মামলার প্রেক্ষিতে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার মোঃ খায়রুল আলমের দিক নির্দেশনায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভেড়ামারা-দৌলতপুর সার্কেল) ইয়াসির আরাফাতের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ও ওসির নেতৃত্বে তদন্ত কর্মকর্তা প্রকাশ রায় গত বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে আসামিকে আটক করতে সক্ষম হন।

আসামির আত্মসাৎকৃত ৭ লাখ টাকার মধ্যে ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামিকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.