মোক্তার হোসেন, পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ী জেলার পাংশায় গত বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর বিকেলে রবিউল ইসলাম (বাবু) নামের এক ব্যক্তি সংবাদ সম্মেলন করেছেন। পাংশা শিল্প ও বণিক সমিতি কার্যালয়ে বিকেল ৪টায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন তিনি। রবিউল ইসলাম (বাবু) পাংশা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের পারনারায়নপুর গ্রামের কাজী নজরুল ইসলামের ছেলে। নির্যাতিত আওয়ামী লীগ পরিবারের ব্যানারে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে রবিউল ইসলাম (বাবু) জানান, তার পিতা কাজী নজরুল ইসলাম পাংশা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সভাপতি। বাবু ও তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি একটি কুচক্রীমহল প্রতিনিয়ত নির্যাতন করে আসছে। রবিউল ইসলাম বাবু জানান, গত ২২শে সেপ্টেম্বর রাতে তাকে (বাবু) ও তার পিতা কাজী নজরুল ইসলামকে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ফিল্মী কায়দার অস্ত্র ঠেকিয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার পর সে জানতে পারে তারা র‌্যাব-১২ এর সদস্য। তাকে একটি মাইক্রোতে তুলে চর আফড়া মধ্যপাড়া নিয়ে ১ঘন্টা দাঁড় করিয়ে রাখে। পরে তাকে ও তার পিতাকে বাড়িতে রেখে যাওয়ার আগে তাকে বিভিন্ন হুমকি প্রদান করা হয়।

লিখিত বক্তব্যে রবিউল ইসলাম বাবু আরও বলেন, বিগত ২০১১-১২ সালে একবার তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে ফেলে রেখে যায় সন্ত্রাসীরা। আবার ২০১৮-১৯ সালে ২শ’ পিস ইয়াবা দিয়ে তাকে চালান দেওয়া হয়। তাকে হয়রানী ও নির্যাতনের জন্য চর আফড়া গ্রামের ৩জন জড়িত বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে রাজবাড়ী জেলা পরিষদের সদস্য ও পাংশা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আহম্মদ হোসেন, পাংশা পৌরসভার মেয়র মোঃ ওয়াজেদ আলী মাস্টার, পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম খান ও দিবালোক কুন্ডু (জীবন), যশাই ইউপির চেয়ারম্যান মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, পাংশা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক ইদ্রিস আলী মন্ডল, ইউনুস আলী বিশ্বাস, মারুফ খানসহ ভুক্তভোগী রবিউল ইসলাম বাবুর পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.