নিজস্ব প্রতিবেদক : গতকাল মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় চিলিস ফুড পার্কে কোভিড ১৯ এর প্রেক্ষাপটে নারীর প্রতি সহিংসতা ও আমাদের করনীয় শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মমতাজ আরা বেগম, প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক, মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থা। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাধন কুমার বিশ^াস, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সদর কুষ্টিয়া, রোকসানা পারভীন, উপ পরিচালক, সমাজসেবা অধিদফতর, কুষ্টিয়া, নুরে সফুরা ফেরদৌস, উপপরিচালক মহিলা বিষয়ক অধিদফতর, মো: সাইদুর রহমান,উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা, সদর কুষ্টিয়া, হারুন অর রশিদ, অধ্যক্ষ, কয়া মহাবিদ্যালয়, এস এম কাদরী শাকিল, সহ সভাপতি, চেম্বার অফ কমার্স, মেরিনা আক্তার মিনা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, কুমারখাল্যী। উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক , এনজিও প্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবর্গ। সেমিনারের উদ্দেশ্য ও স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন জায়েদুল হক মতিন, প্রকল্প সমন্বয়কারী, মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থা। সেমিনারের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন তামজিদা জান্নাতী , ট্রেনিং এন্ড ডকুমেন্টেশন অফিসার, মুক্তি কুষ্টিয়া। উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন ফেরদৌসী বেগম রুবী, নির্বাহী পরিচালক, নিকুঞ্জ নারী উন্নয়ন সংস্থা, আব্দুর রহিম খান, প্রধান শিক্ষক, মহেন্দ্রপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, রফিকুল ইসলাম, নির্বাহী পরিচালক, প্রভাতী, কামরুন্নাহার ময়না এ্যাডভোকেট কামরুন্নাহার, লিগ্যাল এন্ড পোগ্রাম অফিসার, দিশা, সালমা সুলতানা, নির্বাহী পরিচালক, নিকুশিমাজ। সেসিনারে অতিথী গন বলেন সুষম উন্নয়ন হতে হলে জিও এনজিও সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। শিশু নির্যাতন দমন আইন রয়েছে সেটি বাস্তবায়ন করতে হবে। সোস্যাল সেফটিনেট প্রোগ্রামে নারীদের করতে হবে। বিভিন্ন দফতরে যে সকল প্রশিক্ষন রয়েছে সেগুলিতে যেন নারীরা অংশগ্রহন করে স্বাবলম্বী হয় তাহলে নারীর প্রতি সহিংসতা কমবে। মমতাজ আরা বেগম বলেন যে যেখানে যা কিছু শিখি তা নিজেদের জীবনে প্রতিফলিত করতে হবে ও পরিবারের মধ্যে চর্চা করতে হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.