নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়া জেলার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানাধীন বিত্তিপাড়া গ্রামের প্রশান্ত বেদ হত্যাকাণ্ডের ১৫ ঘন্টার মধ্যে হত্যাকান্ডে জড়িত প্রধান আসামি নিহতের ভাতিজা সত্য বেদ আটক। আজ সকালে কুষ্টিয়া পুলিশ লাইন এর কার্যালয়ে প্রেস বিফিংয়ের মাধ্যমে সাংবাদিকদের জানান পুলিশ সুপার খাইরুল আলম।
প্রেসবিফিংয়ে তিনি জানান চলতি মাসের ২৭শে সেপ্টেম্বর সোমবার বিকাল তিনটার সময় নিহত প্রশান্ত বেদের বাড়িতে তাবিজ পুতে রাখার বিষয় নিয়ে নিহতের ভাই আনন্দ বেদের পরিবারের সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আনন্দ বেদের ছেলে এবং নিহতের ভাতিজা সত্য বেদ কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ধারালো বটি দিয়ে চাচা প্রশান্ত বেদের বাম কাঁধে কোপ দেয়। এসময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে প্রশান্ত বেদের বাম কান ও ঘাড় কেটে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় এলাকাবাসী প্রশান্ত বেদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে ঘটনার দিনই নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে ভাসুর ও ভাসুরের ছেলেদের ১. সত্য বেদ, অজয় বেদ ৩. আনন্দ বেদ, ৪ .লতা রানী বেদের নামে ইবি থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন।

তিনি আরও বলেন জেলা পুলিশ প্রশাসনের তৎপরতায় মামলার ১ নম্বর আসামি সত্য বেদকে আজ সকাল ছয়টায় মিরপুর থানা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.