নিজস্ব প্রতিবেদক : জ্ঞাত আয়ের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণ অর্থ সম্পদ অর্জন ও মানিল-ারিং’র অভিযোগে কুষ্টিয়া পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মো: রবিউল ইসলাম (৫৫), স্ত্রী মোছা: কামরুন্নাহার (৪৫) এবং কুষ্টিয়া পৌরসভার সার্ভেয়ার মো: আব্দুল মান্নানের স্ত্রী রুপালী খাতুনের (৪৩) বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কুষ্টিয়া মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছেন। দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সমন্বিত জেলা কার্যালয়, কুষ্টিয়ার উপ-পরিচালক নীল কমল পাল বাদী হয়ে মঙ্গলবার দুর্নীতি দমন কমিশন আইন ২০০৪ এর ২৮(২) ও ২৭(১) ধারা এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ এর ৪(২) ও ৪(৩) ধারা ও তৎসহ দন্ডবিধির ১০৯ ধারায় মামলা দুটি দায়ের করেন।
দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সমন্বিত জেলা কার্যালয়, কুষ্টিয়ার উপ-পরিচালক নীল কমল পাল মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, দুর্নীতি দমন কমিশনের সম্পদ বিবরণীতে কুষ্টিয়া পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম ৩৬ লক্ষ ২ হাজার ৬৪১ টাকা ৩০ পয়সা সম্পদের ভিত্তিহীন বা মিথ্যা তথ্য প্রদান করেছেন। জ্ঞাত আয়ের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণ ৫২ লাখ ১৯ হাজার ৫৭৩ টাকা ২৯ পয়সা সম্পদ অর্জন ও দখলে রাখাসহ হস্তান্তর/রুপান্তর/স্থানান্তর করার অপরাধ করেছেন। অন্যদিকে তাঁর স্ত্রী মোছা: কামরুন্নাহার তাঁর স্বামীর অবৈধ অর্থকে বৈধ করার কাজে সহায়তা প্রদান করেছেন। একইভাবে কুষ্টিয়া পৌরসভার সার্ভেয়ার মো: আব্দুল মান্নানের স্ত্রী মোছা রুপালী খাতুন তাঁর দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে ৫২ লক্ষ ৭৩ হাজার ১৯৩ টাকা ৮৫ পয়সা সম্পদের ভিত্তিহীন বা মিথ্যা তথ্য প্রদান করেছেন। জ্ঞাত আয়ের সাথে অসঙ্গতিপূণ ৭২ লক্ষ ৩২ হাজার ২৪৮ টাকা ৮০ পয়সা সম্পদ অর্জন ও দখলে রাখাসহ হস্তান্তর/রুপান্তর/স্থানান্তর করার অপরাধ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *