মোক্তার হোসেন, পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার কলিমহর ইউপির নাচনা মুরাদপুর গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের ৩জন আহত হয়েছেন। আহত আব্দুল কাদের (৬৫), সাদেক আলী (৫০) ও বাচ্চু শেখ (৪০) কে পাংশা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, গত সোমবার দুপুর ২টার দিকে উজ্জল বিশ্বাসের ছেলে কৌশিক (৭) ও বাচ্চু শেখের ছেলে সেলিম (৯)সহ পাড়ার শিশুরা খেলা করার সময় ধাক্কাধাক্কি করে। ধাক্কা খেয়ে উজ্জল বিশ্বাসের ছেলে কৌশিক পড়ে যায়। কৌশিক কান্নাকাটি করলে তার দাদা রহমত বিশ্বাস ক্ষুব্ধ শিশু সেলিমকে পুকুরের মধ্যে চুবায়। এতে সেলিম অসুস্থ হয়ে পড়লে ওইদিনই শিশু সেলিমকে পাংশা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সেলিমের পিতা বাচ্চু শেখ বাড়ি থেকে সেলিমের জন্য খাবার নিয়ে ভ্যান যোগে পাংশা হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা হলে বাড়ির অদূরে নাচনা মুরাদপুর জামে মসজিদের পাশে রাস্তার উপর অতর্কিতভাবে লাঠিসোটা নিয়ে প্রতিপক্ষের ওয়াসিম, রাজিব, রহমত উজ্জল বিশ্বাসসহ কয়েকজন বাচ্চু শেখের উপর হামলা চালায়। তাদের কবল থেকে বাচ্চু শেখকে উদ্ধার করতে গেলে হামলাকারীদল বাচ্চু শেখের ভাই আব্দুল কাদের ও সাদেক আলীকে মারধর করে। আহত আব্দুল কাদের, সাদেক আলী ও বাচ্চু শেখের মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে কাটাফাটা ও রক্তাক্ত ফোলাজখম হয়েছে। ঘটনার পরপরই আহতদের পাংশা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাংশা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আব্দুল কাদের বলেন, আমরা শান্তিপ্রিয় মানুষ। তুচ্ছ ঘটনায় প্রতিপক্ষের লোকজন জোটবদ্ধ হয়ে শিশু সেলিমসহ তাদের (আব্দুল কাদের, সাদেক আলী ও বাচ্চু শেখ) উপর হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করে আহত করা হয়েছে। এ ঘটনায় তারা আইনী প্রতিকার প্রত্যাশা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.