রানা কাদির, চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গায় প্রেম নিয়ে বিরোধের জেরে তন্ময় আহমেদ তপু নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে বিদায় অনুষ্ঠানে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের আল হেলাল ইসলামি একাডেমি চত্বরে প্রকাশ্যে তাকে খুন করেন কয়েকজন যুবক।

এ সময় পুরো স্কুলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তন্ময় আহমেদ তপু (১৬) ওই স্কুলের এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী এবং চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার নুরনগর কলোনিপাড়ার আবদুল মজিদের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, আজ ওই স্কুলে এসএসসি পরীক্ষার্থী ছাত্রছাত্রীদের বিদায় অনুষ্ঠান চলছিল। অনুষ্ঠান শেষে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তপুকে কয়েকজন যুবক ডাক দেয়। তপু ক্লাসরুম থেকে বেরিয়ে আসার সঙ্গে ৩-৪ জন ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

পরে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। কিছুক্ষণ পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের বন্ধুরা জানান, এক মেয়ের সঙ্গে তপুর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ওই মেয়েকে বহিরাগত এক ছেলেও ভালোবাসত। বিদায় অনুষ্ঠান শেষে তপু ওই মেয়ের সঙ্গে কথা বলছিল। বিষয়টি দেখার পর জেলা শহরের ফার্মপাড়ার ইমন, শিহাব, শান্তিপাড়ার আকাশ ও মুসলিমপাড়ার রূপক ধারালো দা ও চাপাতি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

সদর হাসপাতালে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত ডা. শাকিল আর সালাম জানান, তপুর শরীরের বিভিন্ন অংশে কোপের অসংখ্য চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে হাসপাতালে নেওয়ার পর পরই সে মারা যায়।

আল হেলাল ইসলামি একাডেমির সভাপতি শহিদুল কদর জোয়াদ্দার যুগান্তরকে বলেন, ঘটনার পর থেকে পুরো স্কুলে আতঙ্ক বিরাজ করছে। আমরা দোষীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। হামলাকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.