নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার একটি হত্যা মামলায় চার যুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ডসহ অর্থদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুরে কুষ্টিয়া অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১ এর বিচারক তাজুল ইসলাম জনাকীর্ণ আদালতে দুই আসামীর উপস্থিতি এবং পলাতক দুই আসামীর অনুপস্থিতিতেই এই রায় ঘোষনা করেন। আদালত যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১বছর সাজাভোগের আদেশ দেন।

কারাদন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মিরপুর উপজেলার পয়ারিগ্রাম পশ্চিম পাড়ার বাসিন্দা মোশারফ ওরফে মুসার ছেলে সুজন(৩৭), ধলসা গ্রামের বাসিন্দা ইলা বক্স মৃধার ছেলে মল্লিক হোসেন(৩৫) এবং পলাতক হলেন- পয়ারি গ্রামের শফি উদ্দীনের ছেলে শিপন(৩৮) এবং মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার তেতুলবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল গনির ছেলে মান্নান ওরফে মানারুল(৩৫)।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ১১ জানুয়ারি রাতে মিরপুর উপজেরার মাজিহাট গ্রামের মৃত: মহির উদ্দিনের ছেলে স্যালো ইঞ্জিন চালিত যানবাহন (আলমসাধু) গাড়ি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন। পরদিন সকালে স্থানীয়দের কাছে সংবাদ পেয়ে উপজেলার বুরাপাড়া পয়ারি গ্রামের মাঠ থেকে আলমসাধু চালক ইমান আলীর মরদেহ উদ্ধার করে মিরপুর থানা পুলিশ। এ ঘটনার পরদিন ১২ জানুয়ারি নিহতের বড় ভাই ইকমান আলী বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ এনে মিরপুর থানায় মামলা করেন।

মামলাটি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ তদন্ত করে ২০১৩ সালের জুনে চার আসামীর বিরুদ্ধের হত্যাকান্ডে জড়িত অভিযোগ এনে অভিযোগ পত্র দাখিল করে আদালতে।

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌশুলী এ্যাড: অনুপ কুমার নন্দী বলেন, আলমসাধু চালক ইমান আলী হত্যা মামলায় চার্জগঠন ও দীর্ঘ স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমাণিত হওয়ায় চারজনকেই যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং প্রত্যেকের ৫০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১বছর সাজা ভোগের আদেশ দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.