মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার মহাজনপুর ইউনিয়নের ৮ নাম্বার ওয়ার্ড কোমরপুর পশ্চিম পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রতিদ্বন্দ্বী দুই প্রার্থীর এজেন্ট এর মধ্যে কথা-কাটাকাটির জের ধরে ভোটকেন্দ্রে উত্তেজনা দেখা দেয়। এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৪ রাউন্ড ফাকা গুলি ছোড়ে । এসময় প্রায় ৩০ মিনিট ভোট বন্ধ থাকার পর পুনরায় ভোটদান পর্ব শুরু হয়েছে। নৌকার ২ এজেন্টকে পুলিশ হেফাজতে নেয়।এদিকে নৌকার সমর্থিত রেজাউর রহমান নান্নু অভিযোগ করেন, শরিফ হাবিবুর রহমান তার কপালে পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছে।আজ বৃহস্পতিবার মুজিবনগর উপজেলার মহাজনপুর ইউনিয়নের কোমরপুর পশ্চিমপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে ভোট গ্রহণের শুরুতেই এ ঘটনা ঘটে।আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রেজাউল রহমান নান্নু বলেন, প্রতিপক্ষ আনারস প্রার্থীর এজেন্টরা ওই কেন্দ্রে জোরপূর্বক ভোট দিচ্ছিলো। এ সময় আমি সেখানে উপস্থিত হয়ে ঘটনার প্রতিবাদ করি। এসময় কেন্দ্রের কর্তব্যরত পুলিশের এসআই শরিফ হাবিবুর রহমান আমার মাথায় পিস্তল ঠেকায়ে হত্যার হুমকি দেয় । আমি প্রার্থীতার পরিচয় দেয়ার পরেও সে আমাকে হুমকি দেয়।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.