কুমারখালী প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে গাঁজা, ট্যাপেন্টা, গাঁজা বিক্রী ডিজিটাল দাড়ি ও মাদক বিক্রয় এর টাকা উদ্ধার করেছে।
সে সময় এক নারীসহ তিনজনকে আটক করা হয়।
আটকের পরে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা রুজু করে তাদের কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
আটক ৩ জন হলেন, কুমারখালী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের শের কান্দির রেল পাড়া বস্তির মৃত আবু বক্কর সিদ্দিক এর ছেলে সজিব হোসেন(২৪), মন্টু শেখের ছেলে কারশেদ(২৩) এবং একই এলাকার শাহীনের স্ত্রী হালিমা খাতুন (৩৫) ।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায় কি, গতকাল (13 নভেম্বর) রাত আনুমানিক দুইটার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুমারখালী উপজেলার ৬ নং ওয়ার্ডের শেরকান্দিতে এস আই বাবর ও এ এস আই আব্দুল গফুরের নেতৃত্বে অভিযান চালায় কুমারখালী থানা পুলিশ।
সেসময় রেল বস্তির শাহিনের বাড়ির সামনে মাদক বিক্রয় সময় তাদেরকে আটক করে পুলিশ।
আটক সজীবের কাছ থেকে ৪০০ গ্রাম গাঁজা, কারশেদের কাছ থেকে ৪০০ গ্রাম গাঁজা এবং হালিমার কাছ থেকে ৩২ পিচ ট্যাপেন্টা ও ২৮,২০০ টাকা বাজারের ব্যাগ থেকে উদ্ধার করা হয়।
সেসময় শাহিন পালিয়ে গেলেও শাহিনের বউ হালিমা, সজিব ও কারশেদকে আটক করা হয়।
সেসময় কারশেদ ও সজিব জানায়, তাদের দিয়ে হালিমা মাদকের ব্যবসা করায় এবং প্রতিদিন ৪০০ টাকা করে হাজিরা দিয়ে থাকে।
এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, একজন নারীসহ তিনজনকে গাজা টাপেন্টা ট্যাবলেট, মাদক বিক্রির সরঞ্জাম ও মাদক বিক্রির টাকাসহ আটক করা হয়েছে।
তাদের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য আইনে মামলার পর কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.