মেহেরপুর প্রতিনিধি ॥ ফেন্সিডিল রাখার অপরাধে সুমন ও মানিক সরদার নামের ২ যুবকের ৭ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সোমবার দুপুরের দিকে মেহেরপুরের স্পেশাল ট্রাইবুনাল দ্বিতীয় আদালতের বিচারক রিপতি কুমার বিশ্বাস এ রায় দেন। সাজাপ্রাপ্ত সুমন চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার কুতুবপুর গ্রামের রমজান আলীর ছেলে। এবং মানিক সরদার কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার কাশিমপুর গ্রামের শাহজাহান মিয়া ছেলে। সুমন সরকার পলাতক রয়েছে। জানা গেছে ২০২৫ সালের ৪ মার্চ মুজিবনগর থানার এসআই টিপু সুলতানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল গোপন সূত্রের ভিত্তিতে মুজিবনগর উপজেলার রতনপুর এলাকায় অভিযান চালান। ওই সময় সুমন সহ রাজবাড?ী জেলার ভবদিয়া গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে মানিক সরদার, কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার কাশিমপুর গ্রামের শাহজাহান মিয়া ছেলেকে ছেলে আনিস মিয়াকে গ্রেফতার করেন। ওই সময় তাদের নিকট থেকে ৩ বস্তা বোঝাই মোট ৫শ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় এসআই টিপু সুলতান বাদী হয়ে ১৯৭৪ সালের স্পেশল পাওয়ার অ্যাক্ট এর ২৫ (বি)ধারায় মুজিবনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ৪। মুজিবনগর থানা। তারিখ ৫/৩/২০১৫। জি আর কেস নং৯২/১৫। এস টি সি নং ১৮৩/১৫।পরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মফিজুর রহমান প্রাথমিক তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর সুমন ও মানিক সরদারের বিরুদ্ধ চার্জশিট দাখিল করেন। মামলায় মোট ১২ জন সাক্ষী তাদের সাক্ষ্য প্রদান করেন। এতে সুমন ও মানিক সরদার দোষী প্রমাণিত হওয়ায় আদালত তাদের ৭ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড। ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের করে কারাদণ্ডদেশ দেন।সাজাপ্রাপ্ত মানিক সরকার পলাতক থাকায় সে আটকের দিন থেকে তার সাজা শুরু হবে। মামলার রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত পিপি কাজী শহীদুল হক। এবং আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট আব্দুল আলীম কৌশলী ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.