নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা হাটশ হরিপুর বাজার মুদি দোকানের আরালো অবৈধ যৌন উত্তেজক ও আদম ব্যবসায়ী সাইদুল ইসলামের (৪৫) ছেলে প্রিন্স (২৩) গ্যাং এর আক্রমণে কলেজ ছাত্র রনি (২০) গুরুতর জখম হয়েছে। ঘটনার সূত্রে জানা যায় পারিবারিক কলহের কারণে একই এলাকার বাসিন্দা মৃত: মজিবার আলির ছেলে রনিকে গতকাল রাত আনুমানিক ৮.৩০ টার সময় প্রিন্স (২৩) তার গ্যাংয়ের সাঙ্গু পাঙ্গুদের সঙ্গে করে হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন বাজার সংলগ্ন মাদ্রাসার পিছন থেকে রনিকে দেশি-বিদেশি, অস্ত্র, (ড্যাগার), বেজ বাটাম দিয়ে তার উপর আক্রমণ করে এবং তাকে গুরুতর জখম করে ও বেধরক মারপিট করে পরে স্থানীয় জনগণ বিষয়টি জানতে পেয়ে রনিকে প্রিন্স গ্যাংয়ের হাত থেকে মৃহস্য অবস্থায় প্রাণে রক্ষা করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে বর্তমানে রনির অবস্থা গুরুতর।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রিন্স ও তার বাবা মুদি দোকানের আড়ালে রমরমা (ড্যান্ডির আঠা ও আলাপাতা) জাতীয় মাদক ব্যাবসা ও অবৈধ যৌন উত্তেজকের ঔষধের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। আপ্রাপ্ত বয়ষ্ক ছেলেদের হাতে তুলে দিচ্ছে এসব নেশা। তাদের কে এই ব্যাপারে নিষেধ করলে প্রিন্স তাদের উপর আক্রমণ করে এবং প্রিন্সের ভয়ে মানুষ কিছু বলতে পারে না তাদের। প্রিন্স গ্যাং বর্তমানে হাটশ হরিপুর ইউনিয়নে ভয়াল রূপ ধারণ করেছে । এ সময় আহত রনি আহম্মেদ জানান আমি হরিপুর বাজার থেকে বাসায় যাওয়ার পথে আমাকে প্রিন্স ও তার গ্যাং এর সাঙ্গু পাঙ্গু নিয়ে আড়ালো লুকিয়ে ছিল আমি কিছু বুঝে উঠার আগেই আমাকে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ধারালো দেশি অস্ত্রসহ ,বেজবাটাম হকি ও এস এস পাইপ দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে । একপর্যায়ে আমার কাছে থাকা স্বর্ণের চেইন ও আমার পকেটে থাকা টাকা নিয়ে যায় । এক পর্যায়ে আমি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে এলাকাবাসী উদ্ধার করে জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে । এছাড়াও জানা যায় গেল কয়েকদিন আগেও একই এলাকার অন্য একজনের বাড়িতে গিয়ে তাদের উপর হামলা ও ভাংচুর চালায়, পরবর্তীতে তা স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বার দের মাধ্যমে মিটমাট করা করা হয়। প্রিন্সের বিরুদ্ধে ইভটিজিং, মাদক সহ অনেক অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। প্রিন্স কে আইনের আওতায় এনে তার বিরুদ্ধে আইনত পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সু-দৃষ্টি কামনা করছে এলাকাবাসী ও ভুক্তভূগী র পরিবার ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.