আবুল হোসেন, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ৮ এপ্রিল শুক্রবার সকালে পুলিশ বকুল শেখ (৩৯) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত বুধবার দুপুরে উপজেলার দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটে পদ্মা নদীর পাড়ে ঘটনাটি ঘটে। সে স্থানীয় শাহাদৎ মেম্বার পাড়ার মৃত বদর উদ্দিন শেখ এর ছেলে।
পুলিশ ও এলাকার কয়েকজন জানান, গত বুধবার (৬ এপ্রিল) বেলা দুইটার দিকে স্কুল ছাত্রী নদীতে গোসল করতে যায়। এসময় সুযোগ বুঝে ২ নং ফেরি ঘাট জামে মসজিদের পিছনে প্লাস্টিকের বস্তার আড়ালে শিশুটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ বিষয়টি সে বাড়ির কাউকে যাতে না বলে শাসিয়ে দেয়।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে স্কুল ছাত্রীর মা নদীতে গোসল করতে গিয়ে ধর্ষনের বিষয়টি জানতে পারেন। বিষয়টি জানার পর বাড়ি ফিরে মেয়েকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ঘটনার বিস্তারিত খুলে বললে তাৎক্ষনিকভাবে বিষয়টি স্কুল ছাত্রীর বাবাকে জানায়। স্কুল ছাত্রীর বাবা পরিবারের অন্যান্যদের সাথে আলোচনা করে ৮এপ্রিল শুক্রবার সকালে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ স্থানীয়দের সহযোগিতায় শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে বাড়ি থেকে ধর্ষক বকুল শেখকে গ্রেপ্তার করে।
স্থানীয় কয়েকজন অভিযোগ করেন, ধৃত বকুল শেখ এর স্ত্রী সৌদি আরব প্রবাসী।
বাড়িতে তার মেয়ে ও বকুল শেখ ছাড়া আর কেউ থাকেনা। বকুল শেখও এলাকায় ব্যটারী চালিত অটোরিক্সা চালায়। তার নিজের মেয়েকেও সে ধর্ষন করে বলে অভিযোগ করেন কয়েকজন।
ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রীর বাবা অভিযোগে বলেন, আমার চার মেয়ের মধ্যে এই মেয়েটি দ্বিতীয়। বুধবার রাতে বাড়ি ফিরে দেখি মেয়েটির মন ভার, কারো সাথে তেমন কোন কথা বলছেনা। শরীর খারাপ ভেবে মেয়েকে কিছু বলিনি। বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ি ফিরে মেয়ের কাছ থেকে বিস্তারিত জানতে পারি। আমি বকুলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। যাতে আর কোন বাবাকে মেয়ে ধর্ষণের অভিযোগ শুনতে না হয়।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, শুক্রবার সকালে অভিযোগ পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ধর্ষক বকুল শেখকে বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ডাক্তারী পরীক্ষা করাতে স্কুল ছাত্রীকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে এবং আসামীকেও আদালতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.