মেজবা উদ্দিন পলাশ, কুষ্টিয়া : হত্যা মামলায় গ্রেফতার আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাসদ নেতা আব্দুল হাফিজ তপন।

টানা ৫০দিন ধরে তিনি এলাকা ছাড়া রয়েছেন। অনুপস্থিত রয়েছেন ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম থেকেও। এতে ইউনিয়ন পরিষদের সেবা থেকে বঞ্চিত হয়ে ভোগান্তিতে পড়েছেন ইউনিয়নবাসী।

এদিকে, চাঁদগ্রাম ইউনিয়নের মধ্যপাড়া ও বিলের চর গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় আওয়ামীলীগ নেতা সিদ্দিকুর রহমান হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চলছে হামলা, ভাংচুর-লুটপাটের ঘটনা।
গ্রামজুড়ে অনেকের ঘর-বাড়ি এখন ধ্বংসস্তূপ, বিধ্বস্ত ভিটেবাড়িও। এখনও মানুষের মাঝে কাটেনি আতঙ্ক। বিধ্বস্ত গ্রামজুড়ে ছড়িয়ে আছে ধ্বংস চিহ্ন।

চাঞ্চল্যকর আওয়ামী লীগ নেতা সিদ্দিকুর রহমান নিহতের ঘটনায় তার ছোট ভাই এনামুল হক মন্ডল বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলিম স্বপন ও তাঁর ছোট ভাই চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাসদ নেতা আব্দুল হাফিজ তপনসহ ২০জনের নামে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়ের পর আব্দুল আলীম স্বপন জামিনে এলাকায় থাকলেও গ্রেপ্তার আতঙ্কে ৫০দিন ধরে গ্রামছাড়া রয়েছেন চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাফিজ তপন। তিনি দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে ইউপির নানান কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে৷

ইউনিয়ন এলাকার কয়েকজনের সঙ্গে কথা হলে তারা নান,চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে ইউপির নানান কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে৷ এ কারণে লোকজনকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে৷ জন্মনিবন্ধন সনদ না পাওয়ায় ভোটার হালনাগাদও থেমে আছে। চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন ইউনিয়নবাসী।

এ ব্যাপারে চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাফিজ তপনের সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে জাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলিম স্বপনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,
ওইদিন আমি ও আমার ছোট ভাই আব্দুল হাফিজ তপন এলাকায় ছিলাম না। আমাদের বিরুদ্ধে রাজনৈতিকভাবে হয়রানি করতেই মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে।

ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন,এলাকায় কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনার খবর পাচ্ছি। ওই এলাকায় সংঘাত এড়াতে এখনও পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৮ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সকালে আধিপত্ত্য বিস্তার ও ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলমান বিরোধের জের ধরে গুলি করে সিদ্দিকুর রহমান (৫০) নামে এক আওয়ামীলীগ নেতাকে খুন করে প্রতিপক্ষের লোকজন। খুনের ঘটনার পর স্থানীয় জাসদ ও আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে উত্তাপ ছড়িয়ে পড়ে।

নিহত সিদ্দিকুর রহমান একই এলাকার মৃত ওমর আলীর ছেলে। তিনি চাঁদগ্রাম ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ছিলেন। ওইদিন এঘটনায় তিনজন গুলিবিদ্ধসহ আহত হন আরও ৬জন। আহতরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.