নিজস্ব প্রতিবেদক : অবশেষ খুনের ২৩দিন পর গতকাল ১৫-০৪-২০২২ইং শুক্রবার, কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৫নং ওয়ার্ড জুগিয়া ভাটাপাড়ার ইট ভাটা ব্যাবসায়ী ফারুকের কিশোর পুত্র ৮ম শ্রেণীর ছাত্র আকাশ হত্যা মামলার এজহারভূক্ত আসামী মিরাজুল(১৯) ও বিপ্লব(২০) কে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। অন্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যহত বয়েছে বলে পুলিশ সুত্রে জানাযায়। অনুসন্ধানে জানাগেছে গত ২৪ শে মার্চ ২২ তাং জুগিয়া বালুঘাটে গভীর রাতে কিশোর আকাশ(১৮) কে হত্যা করে বালু ঘাটে ফেলে রেখে যায়। পরবর্তীতে নিহত আকাশের পিতা বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলা নং ৩৪, তারিখ ২৯-০৩-২০২২ ইং।পূর্র্বশত্রুতার জেড়ধরে স্থানীয় উঠতি বয়সি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য হৃদয় ওরফে গুড্ডু(২১), বিপ্লব ওরফে গাড়া(২০),মিরাজুল(১৯), রিজভী(১৮) পরিকল্পিত ভাবে বালুঘাটের ড্রামট্রাকের মধ্যে আকাশকে শারীরিক নির্যাতন ও শ^াসরোধে হত্যা করে বালুঘাটে লাশ ফেলে যায় বলে মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়েছে। নিহতের পরিবার জানায়, খুনের মতো জঘন্য অপরাধ ভিন্ন ধারায় প্রবাহিত করে ধামাচাপা দিতে মঙ্গলবাড়ীয়া বাজারে অবস্থিত সাব্বীর অটোস এর মালিক সাইদুল নিহতের ভাইকে শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করে পুলিশকে কিছু না বলার জন্য ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রান নাশের হুমকি দেয়। খুনিদের আড়াল করতে সাইদুলের এ অপতৎপরতায় জন মনে সন্দেহের সৃষ্টি করেছে। অপর দিকে নিহত আকাশ যে স্কুলে পড়া লেখা করত আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, এই চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডে বিদ্যালয় কতৃপক্ষ সুবিচারের দাবিতে কোনো অবস্থান না নেওয়ায় বির্তকের সৃষ্টি হয়েছে। নেপথ্য কোনো শক্তির ভয়ে স্বোচ্চার হতে পারছে না এমন মন্তব্য অনেকেরই। গ্রেফতারকৃতদের কঠোর ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই আকাশ হত্যা কান্ডের প্রকৃত রহস্য উন্মোচিত হবে বলে অভিমত স্থানীয় নানা শ্রেণীপেশার সাধারন মানুষের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.