হরিনাকুণ্ডু প্রতিনিধি : সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা অর্জনের পর দেশের ভূমিহীন-গৃহহীন-ছিন্নমূল অসহায় জনগোষ্ঠীকে পূনর্বাসনের কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়। এরই ধারাবাহিকতায় মানননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নিজস্ব উদ্ব্যোগে সেই ১৯৯৭ সাল থেকে আশ্রয়ণ প্রকল্পে ছিন্নমূল মানুষের পুনূর্বাসন কার্যক্রমের যাত্রা শুরু হয়। মুজিববর্ষে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের উপহার হিসেবে হরিণাকুণ্ডু উপজেলাতে তৃতীয় পর্যায়ে ঘর ও জমি পাচ্ছে আরও ২৬ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। মানননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় এসব পরিবারকে বিনামূল্যে ২ শতক জমি ও পাকা ঘর তৈরি করে দেয়া হলো।

মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) সকালে সারা দেশের ন্যায় ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলার তাহেরহুদা,জোড়াদাহ,ভায়না এবং রঘুনাথপুর ইনিয়নের ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে জমি ও গৃহ প্রদান(ভার্চুয়াল)কার্যক্রমের,গণভবন থেকে হরিণাকুণ্ডু উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষ থেকে সরাসরি শুভ উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা।

শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গির হোসাইন,উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুস্মিতা সাহা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সেলিম আহমেদ‚মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মুন্সী ফিরোজা সুলতানা,ভায়না ইউপি চেয়ারম্যান তুষার আহম্মেদ, জোড়াদাহ ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম বাবু মিয়া,বীর মুক্তিযোদ্ধা সাকের আলী,প্রেসক্লাবের সভাপতি এম. সাইফুজ্জামান তাজুসহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিক বৃন্দ ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিগণ। উল্লেখ্য মুজিববর্ষে ‘বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না’ প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সব ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.