ভেড়ামরার প্রতিনিধি॥ কুষ্টিয়া ভেড়ামারায় পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের হামলা ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে রিপন(২৮) নামের যুবক রক্তাক্ত জখমসহ গুরুতর আহত হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৫জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

৫০শয্যা বিশিষ্ট ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেøক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা: নুরুল আমীন জানান, সোমবার দুপুরে রিপন নামে যে রোগী হাসপাতালে এসেছিলো, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার বাম পা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাছাড়াও ডান পা, দুই হাত, মাথা ও পিঠেসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে রক্তাক্ত জখম ছিলো। এখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তার প্রয়োজনীয় উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপতালে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।
এঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে উপজেলার চাঁদগ্রাম পশ্চিম পাড়ার সোহেল রানার ছেলে সায়েম(২০) নামের এক যুবকসহ ৫জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে আটক করেছে পুলিশ।
পুলিশ ও স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে উপজেলার চাঁদগ্রাম ইউনিয়নের মধ্য পাড়ার মসজিদ মোড়ের নুরজামানের ছেলে মো. রিপন ভেড়ামারা শহরের নওদাপাড়ায় তার নানার বাড়িতে বেড়াতে আসে। সোমবার দুপুরে রিপন নিজ বাড়িতে ফেরার পথে ঢাকা কোচ ষ্ট্যান্ড সংলগ্ন অটোরিকশা ষ্ট্যান্ডে এসে দাঁড়ায়। এসময় আকস্মাৎ ১০/১২ যুবক দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে তার উপর হামলা চালায়। হামলাকারিরা রিপনকে উপর্যুপরি কুপিয়ে গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম করে। তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে ধাওয়া করলে হামলাকারিরা পালিয়ে যায়। এসসময় সায়েম নামের এক যুককে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বুলবুল আহমেদের দাবি, চলতি বছরের ১৮ জানুয়ারী উপজেলার চাঁদগ্রামে গোষ্ঠীগত দ্বন্দের জেরে আওয়ামী লীগ কর্মী সিদ্দিক হত্যার ঘটনায় জাসদ নেতা ইউপি চেয়ারম্যানসহ নেতাকর্মীরদর বিরুদ্ধে মামলা, পুরুষশুন্য গ্রামে জাসদ সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা ভাংচুর লুটপাটের অভিযোগে পাল্টা আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা, এসবের জের ধরেই সোমবারের এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পূর্ব হতেই জাসদ-আওয়ামী লীগ সমর্থকদের মধ্যে বিবদমান দ্বন্দ আবারও প্রকাশ্য রূপ নিলো বলেও দাবি করেন তিনি।

 

তবে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এই নেতার দাবিকে নাকচ করে ভেড়ামারা থানা পুলিশ জানায়,‘আটক সায়েমের দেয়া ভাষ্যমতে, রিপনের সাথে তাদের টাকা পয়সা লেনদেনের ঘটনায় দ্বন্দের জেরে এই হামলা’।

ভেড়ামারা থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, ‘টাকা লেনদেন নিয়ে ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি তদন্তসহ হামলাকারীদের ধরতে পুশিলী অভিযান চালানো হচ্ছে। এঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঁদগ্রামে উত্তেজনা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে।’ এঘটনায় জড়িত সন্দেহে কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.