নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়ার খোকসায় ঘুমন্ত স্বামীকে গলা কেটে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রীর বিরুদ্ধে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় বন্যা খাতুন নামের ওই গৃহবধূকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে গ্রামবাসী।

শনিবার (১৪ মে) দিনগত রাতে উপজেলার খানপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী মিশন শেখ (৩২) খানপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে। তিনি পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি।

আহত মিশনের ভাবি আঞ্জুয়ারা জানান, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। শনিবার রাতেও তাদের ঝগড়া হয়। পরে মিশন তার নিজের শোবার ঘরের মেঝেতে মাদুর বিছিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। ভোরের আজানের কিছু সময় আগে তার স্ত্রী বন্যা খাতুন ব্লেড দিয়ে স্বামীর গলার ডান পাশে প্রায় ৩ ইঞ্চি কেটে ফেলেন। এ সময় মিশন চিৎকার দিলে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। রাতেই গ্রামবাসী বন্যাকে আটক করে। রোববার (১৫ মে) সকালে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

প্রতিবেশীরা জানান, ছয় বছর আগে কুমারখালী উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের একাধিক স্বামী পরিত্যক্তা বন্যা খাতুনকে বিয়ে করেন মিশন শেখ। তবে তাদের দাম্পত্যজীবন ভালো চলছিল না। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই বিবাদ লাগতো। ওই দম্পতির ঘরে দুটি সন্তান রয়েছে।

এ বিষয়ে খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আশিকুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় দুই রকম তথ্য পাওয়া গেছে। আহত মিশন ও তার পরিবারের দাবি, স্ত্রী বন্যা তাকে হত্যার চেষ্টা করেন। আর স্ত্রী বলছেন, তিনি নিজেই নিজের গলায় ব্লেড চালান। আহতের পরিবারের লোকজন মামলা করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.