দৌলতপুর প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সন্ত্রাসী হামলায় জাসদ যুবজোট নেতা মাহাবুব খান সালাম নিহত হওয়ার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ আওয়ামী লীগের ২২ নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৮-৯ জনের নামে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাদের নামে মামলা হওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় উপজেলার আল্লারদর্গা হাইস্কুল মাঠে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। হোগলবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান লস্করের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন, দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য রেজাউল হক চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন, ভেড়ামারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র শামিমুল ইসলাম ছানা ও জেলা যুবলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন, প্রাগপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম হালসানা, আদাবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাকী, সাবেক চেয়াম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু, ড. মোফাজ্জেল হক, দৌলতপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ। সমাবেশ শুরুর আগে একটি বিক্ষোভ মিছিল আল্লারদর্গা বাজার প্রদক্ষিণ করে। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ নেতাদের নামে মায়ের করা ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

উল্লেখ্য বুধবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলার আল্লারদর্গা মাষ্টারপাড়া গ্রামে সন্ত্রাসী হামলায় জাসদ যুবজোট দৌলতপুর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব খান সালাম (৩৮) নিহত হোন। নিহত মাহাবুব খান সালামের পিতা আলাউদ্দিন খান ওরফে এনামুল হক বাদী হয়ে শুক্রবার (১৩ মে) সকালে হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার নং ৩১। মামলার আসামীদের মধ্যে রয়েছেন দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সাবেক এমপি রেজাউল হক চৌধুরীর ছোটভাই দৌলতপুর আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক ও হোগলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সলিম চৌধুরী, দৌলতপুর যুবলীগের সভাপতি বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরী, দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য আসাদুজ্জামান লোটন চৌধুরীসহ একই পরিবারের ৬ জন।

নিহত মাহাবুব খান সালাম দৌলতপুর উপজেলার কল্যানপুর চরদিয়াড় গ্রামের কথিত তাছের পীরের দরবার শরীফের ভক্ত যুবক রাশেদ হত্যা মামলার এজাহার ভুক্ত আসামী ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.