মিরপুর প্রতিনিধি॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে খোলা মাঠে অসাধু উপায়ে ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যুৎ সংযোগ ব্যবহার করে চুরি ঠেকাতে পেতে রাখা ফাঁদে বিদ্যুৎষ্পৃশ্যে আব্দুল হক ওরফে হক সাহেব (৫০) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। খোলা মাঠে এমন বিদ্যুতের ব্যবহারে ক্ষুদ্ধ এলাকার সাধারন কৃষকরা। যত্রতত্র বিদ্যুতের এমন অপব্যবহার রোধ এবং হত্যার বিচার চেয়ে বিক্ষুব্ধ দাবি করেছেন স্থানীয় কৃষকরা।

সোমবার (৩০ মে) সকাল ৭টার দিকে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা মালিহাদ ইউনিয়নের আবুরী মাঠপাড়া এলাকার মাঠে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কৃষক আব্দুল হক উপজেলার মালিহাদ ইউনিয়নের আবুরী মাঠপাড়া গ্রামের মৃত ইয়ামিন আলীর ছেলে।

নিহতের ছেলে পলাশের অভিযোগ, ‘গত রাতে মরিচের চারা কেনার জন্য পাশ্ববর্তী খবির উদ্দিনের ছেলে শুকচাঁদ আলীর সাথে কথা বলেন আব্দুল হক। সকালে তিনি চারা কেনার জন্য শুকচাঁদ আলীকে সাথে নিয়ে তার জমিতে চারা কিনতে যায়। পরে খবর আসে মাঠে মরিচের জমির আইলের চারপাশে রাখা বিদ্যুৎ সংযগের তারে জড়িয়ে আমার আব্বা মারা গেছে। এটি একটি হত্যাকান্ড আমি এর বিচার চাই।’

নিহতের ফুপাতো ভাই আহাম্মদ আলী জানান, “খোলা মাঠে এভাবে বিদ্যুতের ফাঁদের কারণে আমার ভাই এর মৃত্যু হয়েছে। যেহেতু জমির মালিক যিনি এ বিদ্যুতের ফাঁদ পেতেছেন তিনিও ছিলেন। তাহলে এ মৃত্যু অস্বাভাবিক।”

স্থানীয় কৃষক আসাদুল হক বলেন, “এটি একটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। এভাবে খোলা তারে কাউকে না জানিয়ে বিদ্যুৎ দিয়ে রাখলে যে কেউ মারা যেতে পারে। মাঠে অনেকেই চলাচল করে আমরা জানবো কি করে কে কখন কোথায় এভাবে বিদ্যুতের লাইন দিয়ে রাখবে।”
আরেকজন কৃষক শামিম হোসেন বলেন, “ আমরা মাঠে কাজ করি। বাড়ী থেকে অনেক সময় বাচ্চাদের দিয়ে খাবার পাঠায়। বাচ্চারা যে কোন সময় বিদ্যুৎ পৃষ্ট হতে পারে এমন ফাঁদে। এ ধরনের ঝুঁকিপূর্ন ফাঁদের কারণে আমাদের এলাকার এক কৃষকের প্রাণ গেছে। আমরাও প্রাণ ঝুঁকিতে আছি কারণ কার জমিতে কখন কে বিদুতের লাইন দিয়ে রাখে কে জানে।”

মিরপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, “মাঠে মরিচের জমির বেড়ার সাথে খোলা তার দিয়ে ফাঁদে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে আব্দুল হক নামের এক কৃষককের মৃত্যু হয়েছে বলে স্থানীয়দের দেওয়া খবরের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।” এঘটনায় এখনও কেউ অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেনি। অভিাযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মিরপুর জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার আনান্দ কুমার কুন্ডু জানান, “যদি কেউ অসাধু উপায়ে বিদ্যুতের অপব্যবহার করে এমন অভিযোগ পেলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।” এ ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত অপর কৃষক শুকচাঁদ আলী পলাতক রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.