ভেড়ামারা প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের উচ্ছেদকৃত জায়গা দখলের চেষ্টা চালিয়েছে সন্ত্রাসী একটি চক্র। এসময় সন্ত্রাসীদের ভারী অস্ত্রের আঘাতে গুরুত্বর আহত হয়েছে ভেড়ামারা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম নজু সহ আরো ৩ জন। আহতদের ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ভেড়ামারা থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, গত ১২ মে পানি উন্নয়ন বোর্ডের দখল হয়ে যাওয়া ৮ শতাংশ জমি উদ্ধার করে কুষ্টিয়ার বিজ্ঞ আদালত পানি উন্নয়ন বোর্ড কে বুঝিয়ে দেয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেন ভেড়ামারা উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি রেকসোনা খাতুন। লাল নিশানা টানিয়ে দিয়ে বলা হয়েছিল উদ্ধার হওয়া জমি এখন পানি উন্নয়ন বোর্ডের। এই জমিতে কেউ কোন স্থাপনা গড়তে পারবে না। পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৮ শতাংশ উচ্ছেদ হওয়ার সাথে সাথে পানি উন্নয়ন বোর্ডের লীজ দেওয়া আরো ২৫ শতাংশ জমির উপর স্থাপিত ৪টি দোকানও ভেঙ্গে ফেলা হয়। এতে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয় বীরমুক্তিযোদ্ধা ইয়াকুব আলী’র অসহায় পরিবার সহ ৫টি পরিবার। এরপরই ওই জমির উপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে স্থানীয় একটি সন্ত্রাসী চক্রের। তারা সমুদয় ৩৩ শতক জমিই দখলে নেওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠে। সব সময় সন্ত্রাসী একটি চক্র ঘটনাস্থলে রেখে আতংক ছড়াতে থাকে। কয়েক দফা বেড়া দেওয়ার চেষ্টা করে। কিছু জমি বেড়া দিয়ে ঘিরেও ফেলে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল শনিবার দুপুর ১ টার দিকে ১৫/২০ জনের একটি সন্ত্রাসী বাহিনী ধারালো এবং ভারী অস্ত্র নিয়ে সশস্ত্র অবস্থায় ওই জমি দখল নিতে যায়। এসময় ক্ষতিগ্রস্থ ওই পরিবারের সদস্যরা প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে এগিয়ে আসে ভেড়ামারা পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম নজু (৪২)। সন্ত্রাসীরা তার উপর চড়াও হয়ে মারপিট শুরু করে। এসময় তিনি গুরুত্বর আহত হন। এছাড়াও গুরুত্বর আহত হয় বীরমুক্তিযোদ্ধা ইয়াকুব আলীর পুত্র শরিফুজ্জামান সোহেল (৪২), লিটন হোসেন (৩৮)। আহতদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসেন ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান সহ সঙ্গীয় ফোর্স। তারা দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেন। এঘটনার পর এলাকায় চরম আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। যে কোন সময় বড় ধরনের সহিংস ঘটনা ঘটতে পারে বলে স্থানীয়রা মন্তব্য করেছেন। এ বিষয়ে আহত শরিফুজ্জামান সোহেল বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.