আবুল হোসেন,রাজবাড়ী প্রতিনিধি : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড   আনছের মাঝির পাড়ায় পিঠা মাংস খেয়ে একই গ্রামের ১৫ জন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে গোয়ালন্দ উপজেলা  স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
চিকিৎসাধীন রয়েছে।
জানাগেছে, ১৩ জুন  দৌলতদিয়া ইউনিয়নের আনছের মাঝির পাড়ায় আব্দুল প্রামানিক তার বাড়ীতে বোরো ধানের খড় পালা দেওয়ার জন্য  গ্রামের ৭ জন ও নিজ বাড়ীর ৮ জন লোক মোট ১৫ জনকে দিয়ে বিনা পারিশ্রমিকে বা দৈনিক মনি নেয়া ( নিঙ্গাড়া) নিয়ে নতুন বোরো ধানের খড়  পালা দেয়।
তাদের পারিশ্রমের বিনিময়ে তাদের কোন টাকা পয়সা দিতে হবে না। কাজ শেষে  পিঠা মাংস খাওয়াতে হবে। ধানের খড় পালা দেওয়ার পর রাতে আব্দুল প্রামানিকের বাড়ীতে সবাই কে পিঠা মাংস খাওয়ানো হয়। রাতে পিঠা মাংস খেয়ে প্রত্যেকে নিজ বাড়িতে যাওয়ার পর থেকে একে একে সবার পেটে ব্যাথা শুরু হয়। পরে পাতলা পায়খানা ও বমি হতে থাকে। স্থানীয় ফার্মেসী থেকে ঔষধ কিনে খাওয়ার পরও ডায়রিয়া নিয়ন্ত্রণে না আসায় ১৪ জুন মঙ্গলবার ভোরে  ১৫ জনই  গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  চিকিৎসার নেওয়ার জন্য ভর্তি হয়।
আব্দুল প্রামানিকের ছোট ভাই মনির হোসেন বলেন, আমার মেজ ভাইয়ের  বাড়ীতে নতুন বোরো ধানের খড় পালা দেওয়ার জন্য আমারা কয়েক ভাই ও গ্রামের ৭ জন সহ ১৫ কে লোক বিনা পারিশ্রমিক শুধু পিঠা মাংস খাওয়ানোর বিনিময়ে দৈনিক মনি( আঞ্চলিক ভাষায় নিঙ্গাড়া) দেই।। সবাই ধানের খড় পালা দিয়ে রাত ৯ টার দিকে সবাই একত্র চিতই পিঠা, মুরগির মাংস, ভাত, ডাউল,মিষ্টান্ন  খেয়ে যার যার বাড়ীতে চলে যাই।
রাতে বাড়ীতে আসার পর থেকেই পেট  ব্যাথা,  পাতলা পায়খানা, জ্বর,বমি শুরু হয়। স্থানীয় ফার্ম্মেসি থেকে ঔষধ খাওয়ার পরও ডায়রিয়া নিয়ন্ত্রণে না আসায় হাসপাতাল ভর্তি হয়েছি।
দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ড  সদস্য মো. জামাল মোল্লা ঘটনার বিষয়ে নিশ্চিত করে বলেন, আনছের মাঝির পাড়ায়  নতুন বোরোধানের খড় পালা দেওয়ার জন্য বিনা পারিশ্রমিকে দৈনিক মনি দেওয়া ( নিঙ্গাড়া) দিয়ে পিঠা  মাংস খেয়ে একই গ্রামের ১৫ জন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা  ডা. সৈয়দ আমিরুল হক শামীম বলেন,একই গ্রামের ১৫ জন লোক দৈনিক মনি দিয়ে ছিলেন। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে তাদের খাদ্য ও পানির মধ্যে পেটে পিড়া করার মতো কোনো উপাদান ছিলো । তারা প্রত্যেকে জ্বর, পেটের ব্যাথা, ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.