আবুল হোসেন, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া বাজারে রবিবার সকাল অপরিকল্পিতভাবে নিম্ন মানের ইট ও খোয়া দিয়ে ড্রেনেজ
নির্মাণ কাজ শুরু করায় হয়। অভিযোগ পেয়ে দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মন্ডল তাৎক্ষণিক ওই কাজ বন্ধ করে দেন।
জানা গেছে, দৌলতদিয়া বাজারে ঠিকমতো পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না রেখেই ৭ লক্ষ টাকা ব্যায়ে ৯৭ মিটার লম্বা ও সাড়ে ৯ শত মিলিমিটার চওড়া ড্রেন নির্মাণের কাজ রোববার সকালে
শুরু করেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার। কিন্তু কাজটি নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে তড়িঘড়ি করে করা হচ্ছিল।
বাজারের ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, বাজারের পানি ওই ড্রেন দিয়ে সরবে না, বরং তা ড্রেনে জমে মশার বংশ বিস্তার করবে ও দুর্গন্ধ ছড়াবে।
এ সময় ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এখানে যে ড্রেন হচ্ছে আমরা তার কিছুই জানি না। হঠাৎ কওে দেখি আজ সকালে (রবিবার) কয়েকজন শ্রমিক মাটি খোরাখুড়ির কাজ করছে। পরে
ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান ও বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের সভাপতি মোহন মন্ডল
ঘটনাস্থলে এসে কাজ বন্ধ করে দেন।
এ বিষয়ে দৌলতদিয়া বাজার ব্যবসায়ী পরিষদের সভাপতি মোহন মন্ডল বলেন, এ বাজারে ড্রেনের
কাজ হচ্ছে, অথচ আমি এর কোন কিছুই জানি না।
১২ জুন রবিবার দুপুরে চেয়ারম্যান সাথে এসে দেখি নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে ড্রেনের কাজ করছে।
সঙ্গে সঙ্গে আমরা কাজ বন্ধ করে দেই।
দৌলতদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আঃ রহমান মন্ডল বলেন, নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করার জন্য
কাজটি বন্ধ করা হয়। জনগনের টাকায় বাজারের এ উন্নয়নমুলক কাজটি করা হচ্ছে। তাই আমি জনগনের প্রতিনিধি হিসেবে কাজের যে শিডিউল রয়েছে তার বাহিরে কোন কাজ করতে দিতে পারি না।
গোয়ালন্দ উপজেল প্রকৌশলী মো. বজলুর রহমান খান মুঠো ফোনে বলেন, কেবল মাটি খুড়াখুরড়ির কাজ চলছে, আর কাজের জন্য যে নিম্মমানের ইটের খুয়া আনা হয়েছে সেটি আমি দেখে কাজ
বন্ধ করে দিয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.