মোক্তার হোসেন, পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ঃ পাংশায় গত শনিবার ১১ জুন সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় সরদার আব্দুস সোবহান স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। পাংশা মহিলা কলেজ হলরুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পাংশা সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আরশাদ আলী।

পাংশা মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ এবিএম ওয়াহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে স্মৃতিচারণমূলক জ্ঞানগর্ভ আলোচনা করেন ড. কাজী মোতাহার হোসেন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ বিকাশ চন্দ্র বসু, হোগলাডাঙ্গী এমআই কামিল মডেল মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ মীর মো. আব্দুল বাতেন, পাংশা শাহজুই কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মুহা. আবু মুসা আশয়ারী, পাংশা শিল্প ও বণিক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজী আসকার দানিয়েল সিপার, পাংশার ইতিহাস গ্রন্থের লেখক শেখ মুহাম্মদ সবুর উদ্দিন ও পাংশা সরকারি কলেজের সাবেক সহকারী অধ্যাপক মো. ফজলুর রহমান। উপস্থাপনা করেন সরদার আব্দুস সোবহান স্মারক গ্রন্থের সম্পাদক অধ্যাপক এমএ জিন্নাহ।

অনুষ্ঠানে পাংশা সরকারি কলেজের সাবেক সহকারী অধ্যাপক মো. আবুল কাশেম, পাংশা সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান মো. সহিদুর রহমান, পাংশা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর খোন্দকার মাহাবুব হোসেন রিপন, আলহাজ্ব আমজাদ হোসেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. আব্দুল মমিন, পরানপুর ডিএস দাখিল মাদরাসার সুপার মো. গোলাম মোস্তফা চৌধুরী, লাড়িবাড়ি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এএসএম ওয়াজেদুর রহমান, সাংবাদিক মো. মোক্তার হোসেন, পাংশা সাহিত্য উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি মুহাম্মদ ফিরোজ হায়দার, যশোর এমএম কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. হাফিজুর রহমান, সরদার আব্দুস সোবহান স্মারক গ্রন্থের সহযোগী সম্পাদক ও মরহুম সরদার আব্দুস সোবহান মাস্টারের মেজো পুত্র খালেদ জগলুল পাশা, পাংশা পৌরসভার সাবেক কমিশনার ও মরহুম সরদার আব্দুস সোবহান মাস্টারের জ্যেষ্ঠ পুত্র খালেদ ফজলুল্লাহ, সরদার আব্দুস সোবহান স্মারক গ্রন্থের সহযোগী সম্পাদক ও পাংশা মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. আসাদুজ্জামান মাসুদ, কালুখালী উপজেলা জাতীয় যুব সমাজের সাধারণ সম্পাদক মো. সহিদুল ইসলাম, মাগুড়াডাঙ্গী কাজী আব্দুল মাজেদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাপ জান নেছা, মরহুম সরদার আব্দুস সোবহান মাস্টারের জামাতা মাওলানা মো. লোকমান হোসেন ও কায়সার আলী মাস্টার, মরহুম আব্দুস সোবহান মাস্টারের মেয়ে বেগম সাজেদা গুলরুখ ও বেগম দিলরুবা গুলরুখ, মরহুম সরদার আব্দুস সোবহান মাস্টারের নাতনি সালসাবিল মাহি, লায়লা জেসমীন, সায়মা ও লায়লা নাসরিন, নাতি সিয়াম ও জিসান, পুত্রবধূ নিলুফা ইয়াসমিন হিরাসহ সরদার আব্দুস সোবহান স্মারক গ্রন্থ প্রকাশের সাথে সম্পৃক্ত ব্যক্তিবর্গ ও স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণি পেশার বিশিষ্ট ব্যক্তিগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আরশাদ আলী স্মৃতিচারণ করে বলেন, সরদার আব্দুস সোবহান চলনে বলনে কথাবার্তায় একজন আলোকিত মানুষ ছিলেন। জ্ঞান অর্জনে তার প্রবল আগ্রহ ছিল। জ্ঞানান্বেষণ ও জ্ঞান বিতরণে তিনি ছিলেন অবিচল। ব্যক্তি জীবনে তিনি ছিলেন জ্ঞানের পূজারী। সমাজে আলো ছাড়ানোর গুণ ছিল তার মধ্যে। সমাজে এমন আলোকিত মানুষ স্মরণীয় ও বরণীয় হয়ে থাকেন। এমন মানুষের দ্বারা সমাজ উপকৃত হয়, দেশ এগিয়ে যায়। তিনি আরও বলেন, সরদার আব্দুস সোবহান মাস্টারের সংস্পর্শে যারা এসেছেন, তার জীবন ও কর্মে যারা অনুপ্রাণিত হয়েছেন তারাও আজ প্রতিষ্ঠিত। সাহিত্য-সংস্কৃতি চর্চায় তারা অবদান রেখে চলেছেন। তিনি বলেন, এমন একটি মহতি অনুষ্ঠানে আসতে পেয়ে আমি আনন্দিত। গুণীজনদের সম্মান ও স্মরণ করা সামাজিক দায়িত্ব। সরদার আব্দুস সোবহান স্মরণে তথ্যসমৃদ্ধ স্মারক গ্রন্থ প্রকাশ করে দায়িত্ববোধের পরিচয় দেওয়া হয়েছে। স্মারক গ্রন্থের সাথে সম্পৃক্ত সকলের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন তিনি।

এদিকে, সরদার আব্দুস সোবহান স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষে পাংশা মহিলা কলেজ চত্বর গুণীজনদের মিলন মেলায় পরিণত হয়।

প্রসঙ্গত ঃ মাগুড়াডাঙ্গী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক, বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ, লেখক, সাহিত্যিক ও গবেষক সরদার আব্দুস সোবহান ২০২১ সালের ১৩ মার্চ বার্ধক্যজনিক কারণে ইন্তেকাল করেন।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.